দুর্গাপুরে যুবলীগ নেতার বাড়িতে ভাঙচুর ও লুটপাট, আহত ৩

আপডেট: এপ্রিল ১৯, ২০২১, ৯:২৪ অপরাহ্ণ

দুর্গাপুর প্রতিনিধি:


রাজশাহী দুর্গাপুরে যুবলীগ নেতা আজমত আলী বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। একই সাথে তার বড় ভাইয়ের বাড়িতে এই হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাট করা হয়। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ঝালুকা ইউনিয়নের ঝালুকা মাঝারপাড়া গ্রামে। আজমত আলী দুর্গাপুর উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সহসভাপতি। এঘটনায় দুর্গাপুর থানায় লুটপাট ও ভাঙচুরের অভিযোগে মামলার প্রস্তুতি চলছে। এদিকে ওই হামলার শিকার আহত ৩ জনকে উদ্ধার করে দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হলেন, রাজু আহম্মেদ, মুকুল হোসেন ও মিঠুন আলী।
জানা গেছে, সোমবার (১৯ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৬টার দিকে একই ঝালুকা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড যুবদলের সভাপতি ফয়জুল ইসলাম ও বিএনপির সভাপতি মোজাম্মেল হকের নেতৃত্বে মাসুদ, সুক্তানি, বাবলু হোসেন, আবুল হোসেনসহ ২০ থেকে ২৫জন ব্যাক্তি ধারালো হাসুয়া,লাঠি হাতে নিয়ে যুবলীগ নেতা আজমত আলীর বাড়িতে হামলা চালায়। হামলা চালিয়ে বাড়ি বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাঙচুর, লুটপাট করে তারা। এর পরে তার বড় ভাই মোস্তফার বাড়িতে একই কায়দায় হামলা চালানো হয়। লুট করে নেয়া হয় দুই বাড়ি থেকে বস্তা ভর্তি চাল, ৭ ভরি স্বর্ণ ও নগদ ১৩ লাখ টাকা। ক্ষতিগ্রস্ত পারিবারের প্রধান যুবলীগ নেতা আজমত আলী বলেন, পূর্বপরিকল্পিত ভাবে ধারালো দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে দুই বিএনপির নেতার নেতৃত্বে একদল ক্যাডার বহিনী আমার ও আমার বড় ভাইয়ের বাড়ি হামলা চালায়। আমি তাদের ভয়ে নিজেকে রক্ষায় ঘরের চাতালে লুকিয়ে পড়ি। তারা আমার বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট চালানোর পরে বড় ভাইয়ের বাড়িতে একই ঘটনা ঘটিয়ে তারা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। তিনি বর্তমানে তার পরিবার নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। এবিষয়ে দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হাসমত আলী জানান, এঘটনায় মামলা প্রস্তুতি চলছে। মামলা হলে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ