দুর্গাপুরে শিক্ষার্থীদের টিফিন ক্যারিয়ার বিতরণকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ

আপডেট: জানুয়ারি ১৯, ২০১৭, ১২:১৩ পূর্বাহ্ণ

দুর্গাপুর প্রতিনিধি


দুর্গাপুর উপজেলার আন্দুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ছাত্রছাত্রীদের মাঝে টিফিন ক্যারিয়ার বিতরণকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে দু’দফা সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। বুধবার দুপুর থেকে শুরু হওয়া এ ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে দুর্গাপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে সংঘর্ষে জড়িত উভয় পক্ষের নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করে দেন। পুনরায় সংঘর্ষ এড়াতে ওই এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে।
স্থানীয় লোকজনদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার আন্দুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের মাঝে টিফিন ক্যারিয়ার বিতরণের জন্য স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল মোতালেব ও ইউপি চেয়ারম্যান মোজাহার আলী মন্ডল বিদ্যালয়ে যান। কিছুক্ষন পরেই স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা জহির রায়হানের নেতৃত্বে কয়েকজন ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা সেখানে যান। সেখানে গিয়ে তারা দেখেন ছাত্রছাত্রীদের মাছে টিফিন ক্যারিয়ার বিতরণ করা হচ্ছে। তবে মাত্র ১৭৫ জন ছাত্র-ছাত্রীর মাঝে তা বিতরণ করা হবে। যার দাম মাত্র ১৭ হাজার টাকা। অথচ টিফিন ক্যারিয়ার বিতরণের জন্য সরকারিভাবে বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে এক লাখ ২৬ হাজার ৮৩৯ টাকা। বিষয়টি জানতে পেরে ছাত্রলীগ নেতা জহিরের সমর্থকরা ইউপি সদস্য আব্দুল মোতালেবের কাছে বাকি টাকার হদিস জানতে চাইলে তিনি কোন জবাব না দিয়ে চেয়ারম্যান মোজাহার আলীকে সাথে নিয়ে বিদ্যালয় ত্যাগ করেন। এর কিছুক্ষন পর কিছু লোকজন নিয়ে আবারো বিদ্যালয়ে উপস্থিত হন ইউপি সদস্য আব্দুল মোতালেব। এরপর উভয় পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয়। পরবর্তিতে আন্দুয়া ও আদাড়ী পাড়া গ্রামের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। খবর পেয়ে দুর্গাপুর থানার পুলিশ উপস্থিত হয়ে উভয় পক্ষের লোকজনকে সরিয়ে দেন।
এ ঘটনার জের ধরে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে আমগাছী বাজারে আবারো জহির ও আব্দুল মোতালেবের সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয়। এ সময় আব্দুল মোতালেবের সমর্থক ইয়াসিন আলী সামান্য আহত হয় বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় ওই এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে আবারো দুর্গাপুর থানার পুলিশ উপস্থিত হলে উভয় পক্ষের লোকজন সরে যায়।
ছাত্রলীগ নেতা জহির রায়হান অভিযোগ করেন, মাত্র ১৭ হাজার টাকায় ১৭৫ সেট টিফিন ক্যারিয়ার কিনে তা গোপনে বিতরণ করা হচ্ছিল। বাকি টাকার হিসাব চাওয়ায় ইউপি সদস্য আব্দুল মোতালেব লোকজন নিয়ে তার কর্মী সমর্থকদের উপর হামলা চালায়।
অপরদিকে ইউপি সদস্য আব্দুল মোতালেব দাবি করেন, যে টাকা সরকারিভাবে পাওয়া গেছে তা দিয়েই টিফিন ক্যারিয়ার কিনে সুষ্ঠভাবে বণ্টন করা হচ্ছিল। কিন্তু তাতে অযাচিতভাবে বাধা দেন জহির সমর্থকরা।
দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রুহুল আলম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে দুদফা পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পরবর্তিতে আবারো যাতে সংঘর্ষের মতো কোন ঘটনা না ঘটে সে জন্য ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ