দুর্গাপুর স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিত করলেন একই হাসপাতালের দুই চিকিৎসক

আপডেট: September 22, 2020, 9:36 pm

দুর্গাপুর প্রতিনিধি:


দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিত করলেন একই হাসপাতালের দুই চিকিৎসক। এঘটনায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটিতে চিকিৎসক ও স্টাফদের মধ্যে ব্যাপক উত্তেজনা বিরাজ করছে। দুর্গাপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
লাঞ্ছিতের শিকার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার আসাদুজ্জামান জানান, তিনি হাসপাতালের চিকিৎসা ব্যবস্থাসহ সকল প্রকার পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। করোনার দোহায় দিয়ে বেশ কয়েকজন চিকিৎসক- তারা নিয়মিত হাসপাতালে এসে চিকিৎসা দিচ্ছেন না। প্রায় দিন তারা হাসপাতালে অনুপস্থিত থাকেন। ১৫-১৭ সেপ্টেম্বর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডাক্তার আসফাক আলী ও অর্থোপেডিক কনসালটেন্ট ডাক্তার আবদুল্লাহসহ কয়েকজন ডাক্তার না আসায় তাদের হাজিরা খাতায় অনুপস্থিত দেখানো হয়। এর জের ধরে মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকালে ডাক্তার আসফাক ও আবদুল্লাহ আমার অফিস কক্ষে প্রবেশ করে সঙ্গে সঙ্গে দরজা লাগিয়ে দেয়। এরপর ওই দুই চিকিৎসক আমাকে ব্যাপক গালিগালাজ করতে থাকে। এক পর্যায়ে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে তারা। এমনকি অফিসের বিভিন্ন প্রয়োজনীয় ফাইলপত্র ছুঁড়ে ফেলে দেয়। এসময় অন্যান্য চিকিৎসক ও স্টাফরা দরজায় এসে ধাক্কাধাক্কি করলে পরে তারা দরজা খুলে সটকে পড়েন। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি শান্ত করেন।
ডাক্তার আসাদুজ্জামান আরো জানান, তিনি এবিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জানিয়েছেন। তাদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। এবিষয়ে আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডাক্তার আসফাক আলীর সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের সাথে কোনো কথা বলতে চাননি।
এবিষয়ে দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খুরশিদা বানু কনা জানান, পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। তবে এঘটনায় থানায় কোনো অভিযোগ করেনি কেউ।
এ বিষয়ে দুর্গাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মহসীন মৃধা জানান, হাসপাতালে ডাক্তারদের মধ্যে একটি অনাকাক্সিক্ষত ঘটনা ঘটেছে। তবে উভয়ের সাথে বসে ঘটনাটির সমাধান করা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ