দেলোয়ার-মোহরের ছোবল সামলে সোহরাওয়ার্দীর সেঞ্চুরি

আপডেট: নভেম্বর ১৭, ২০১৯, ১২:৫১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


দুই পেসার দেলোয়ার হোসেন ও মোহর শেখের ছোবলে টালমাটাল রংপুরকে পথ দেখালেন সোহরাওয়ার্দী শুভ। রাজশাহীর বিপক্ষে দারুণ সেঞ্চুরিতে দলকে রাখলেন তিনশ রানের পথে।
রাজশাহীর শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে প্রথম স্তরের ম্যাচে শনিবার ৮ উইকেটে ২৬৩ রান করেছে রংপুর। দুই লেগ স্পিনিং অলরাউন্ডার তানবীর হায়দার ২৬ ও রিশাদ হোসেন ১ রানে ব্যাট করছেন।
টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি রংপুরের। মেহেদী মারুফকে গোল্ডেন ডাকের স্বাদ দেন দেলোয়ার। ম্যাচের দ্বিতীয় বলে মাঠে যাওয়া সোহরাওয়ার্দী আগলে রাখেন এক প্রান্ত।
আরেক ওপেনার জাহিদ জাভেদকে দ্রুত ফেরান মোহর। তৃতীয় উইকেটে অধিনায়ক নাঈম ইসলামকে নিয়ে ৭৬ রানের জুটি গড়েন সোহরাওয়ার্দী। এই জুটি গড়ার পথে চার হাজার রানের মাইলফকে পৌঁছান সোহরাওয়ার্দী। এই বাঁ-হাতি স্পিনারের নামের পাশে রয়েছে ৩৩৩টি উইকেট।
৪০ রান করা অধিনায়ক নাঈমকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন মোহর। আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান নাসির হোসেনকে দ্রুত বিদায় করেন দেলোয়ার। এরপর আরিফুল হককে নিয়ে ১১১ রানের জুটি গড়েন সোহরাওয়ার্দী। ৫৭ রান করা আরিফুলকে ফিরিয়ে এবারও জুটি ভাঙেন পেসার মোহর।
২০৯ বলে ক্যারিয়ারে পঞ্চম সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন সোহরাওয়ার্দী। এরপর আর টেকেননি বেশিক্ষণ। দেলোয়ারের বলে ক্যাচ দিয়ে ফেরার আগে ২১৭ বলে ১৫টি চারে এই মিডল অর্ডার করেন ১০৫ রান।
শেষ বিকেলে ধীমান ঘোষ ও আলাউদ্দিন বাবুকে ফিরিয়ে দিনটা রংপুরের হতে দেয়নি রাজশাহী। ধীমানকে বিদায় করা দেলোয়ার ৫৫ বলে ৪ উইকেট নিয়ে স্বাগতিকদের সেরা বোলার। মোহর ৩ উইকেট নেন ৫৩ রানে। লাঞ্চের পরপর চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন তরুণ পেসার সুজন হাওলাদার।
সংক্ষিপ্ত স্কোর:
রংপুর ১ম ইনিংস: ৮৫ ওভারে ২৬৩/৮ (মারুফ ০, জাহিদ ৬, সোহরাওয়ার্দী ১০৫, নাঈম ৪০, নাসির ৫, আরিফুল ৫৭, তানবীর ২৬*, ধীমান ৯, আলাউদ্দিন ৩, রিশাদ ১*; দেলোয়ার ১৯.৩-৫-৫৫-৪, মুক্তার ২১-৩-৭৩-০, মোহর ১৭-৩-৫৩-৩, সুজন ৬.৩-২-১৯-০, সানজামুল ১৮-২-৪৭-০, সাব্বির ৩-০-৯-০)