দেশের বিরুদ্ধে পাকিস্তানি পতাকা এদের শাস্তি হতেই হবে

আপডেট: নভেম্বর ২৩, ২০২১, ১২:১৬ পূর্বাহ্ণ

পাকিস্তান ক্রিকেট দল এই মুহূর্তে বাংলাদেশ সফর করছে। ইতোমধ্যেই টি-টোয়েন্টির তিনটি খেলা শেষ হয়েছে। প্রথম টি-টোয়েন্টিতে এক বাংলাদেশি যুবকের ‘পাকিস্তান জিন্দাবাদ’ স্লোগানের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছিল। তাও আবার পাকিস্তানের জার্সি গায়ে দিয়ে। এমন সব ঘটনা নিয়ে আলোড়ন তৈরি হয়েছে- শুধু সোশ্যাল মিডিয়ায় নয়, ব্যাপারটি সরকারের মধ্যেও আলোচিত হচ্ছে। শুধু তাই নয়, ম্যাচ শুরুর আগে রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা মানুষ বাংলাদেশের টিম বাসকে দুয়ো দিলেও পাকিস্তানের টিম বাসকে অভ্যর্থনা জানাতে দেখা গেছে। মিরপুর স্টেডিয়াম গ্যালারিতে পাকিস্তানি পতাকা হাতে পাকিস্তানের সমর্থনে উল্লাস করতে দেখা গিয়েছে। যারা এই উল্লাস প্রকাশ করেছে, পাকিস্তানের পতাকা উড়িয়েছে তারা এ দেশেরই মানুষ। খেলাটা যখন বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের মধ্যে তখন দেশেরই কিছু যুবক পাকিস্তানের পক্ষে উল্লাস করছে ব্যাপারটা শুধু দৃষ্টিকটূ নয় কেননা এটা এমন গর্হিত কাজ যাতে দেশকে খাটো করা হয়েছে, দেশের অমর্যাদা করা হয়েছে। এরা কারা? কী এদের পরিচয়? তাদের সমর্থনে পাকিস্তানি ক্যাপ্টেন বিম্ময় প্রকাশ করেছেন, অভিভুত হয়েছেন। ক্যাপ্টেনের ভাষায়, ‘২০১৮ সালেও এখানে খেলতে এসেছিলাম, তখনও এত দর্শক পাকিস্তানকে সমর্থন করেনি।’
জাতীয়তাবোধ আবেগ থেকে আনন্দ-উল্লাসে জাতীয় পতাকা যুক্ত হয়। কিন্তু সেটা নিজ দেশের বিরুদ্ধে, প্রতিপক্ষ দেশের জাতীয় পতাকা হাতে উল্লাস? এটা মেনে নেয়া খুবই কঠিন। এমন খোড়া যুক্তি দিয়েও কেউ যদি বলে যে, বাংলাদেশ ক্রিকেট টিম ক্রমাগতভাবে খারাপ খেলে চলেছে- তাই দুঃখ- অভিমানের বশীভুত হয়ে পাকিস্তানকে সমর্থন করা। এটাও দেশপ্রেমিক কোনো মানুষের কর্ম-বৈশিষ্ট্য হতে পারে না। দেশের ওপরে অন্য কিছুকেই যুক্ত করা যায় না। বাংলাদেশ আজ ভাল খেলছে না, কাল ভাল খেলবে না- এটা কে বলেছে? দেশের যত খেলা- তার মধ্যে ক্রিকেটই আমাদের সর্বাধিক আন্তর্জাতিক পরিচয় এনে দিয়েছে এটা ভুলে গেলে চলবে না। অতীতের অনেক সাফল্য বিশ্বকে চমকে দিয়েছে, তাদের নতুন নতুন হিসাব কষতে বাধ্য করেছে। তারা বাংলাদেশকে সমীহ করতে শিখেছে। ক্রিকেটে কোনো কোনো সময় খারাপ যায়, খুবই খারাপ যায়। সেটা শুধু বাংলাদেশের ক্ষেত্রেই নয়Ñ সব দেশের ক্রিকেটের ক্ষেত্রেই সেটা প্রযোজ্য। তারমানে এই নয় যে,বাংলাদেশের বিপক্ষে দাঁড়াতে হবে! যারা বাংলাদেশকে হেয় করেছে- তারা এদেশের হতে পারে না। এরা কুলাঙ্গার।
পাকিস্তানের অধিনায়ক ফখরে জামান প্রথম টি-টোয়েন্টির আগের দিনই বলেছিলেন, বাংলাদেশে তাদের সমর্থক আছে এবং তারা সে সমর্থন পাবেন। তিনি অগ্রিম জানলেন কীভাবে? তা হলে কি পাকিস্তানি পতাকা হাতে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়াটা কি পরিকল্পিত ঘটনা ছিল? অবশ্যই এসব কিছু খতিয়ে দেখার বিষয়। এ গুলোকে বিচ্ছিন্ন ঘটনা দেখার কোনো সুযোগ নেই।
সংবাদ মাধ্যমের তথ্যমতে, বাংলাদেশ-পাকিস্তান ক্রিকেট ম্যাচে পাকিস্তান দলকে সমর্থনের বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। দেশের মানুষও সেটা চায়। বিষয়টিকে গভীরভাবে খতিয়ে দেখে দোষিদের চিহ্নিত করা এবং শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ