দ্বিতীয় দফায় রাজশাহীর ৪২ বীর মুক্তিযোদ্ধার চূড়ান্ত তালিকা

আপডেট: মে ১০, ২০২১, ১২:২০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


দ্বিতীয় পর্বে ৬ হাজার ৯৮৮ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার নামের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করেছে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। এই তালিকার ৮ বিভাগের ৬ হাজার ৯৮৮ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম প্রকাশ করা হয়েছে। এরমধ্যে রাজশাহী জেলার ৪২ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম প্রকাশ করা হয়েছে।
দ্বিতীয় পর্বে রাজশাহী জেলার যেসব বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম এসেছে। তারা হলেন, রাজশাহীর বাঘা উপজেলার সুবহান হাজীর ছেলে মো. জামাত আলী, বাঘা উপজেলার মৃত সৈয়দ আলীর ছেলে মো. বয়েজ উদ্দিন, গোদাগাড়ী উপজেলার নূর মোহাম্মদ এর ছেলে মো. দুলাল উদ্দীন, তানোর উপজেলার শামশুল হকের ছেলে মো. মোজাম্মেল হক, মোহনপুর উপজেলার মো. তছির উদ্দিন এর ছেলে মো. মফিজ উদ্দিন, বোয়ালিয়া থানার আব্দুল হামিদ মিয়ার ছেলে এএইচএম কামারুজ্জামান, গোদাগাড়ী উপজেলার মোসলেম উদ্দিন এর ছেলে মো. আফজাল হোসেন, মতিহার থানার মৃত ইউনুস আলীর ছেলে মো. আব্দুস সাত্তার, বাঘা উপজেলার সুবধ কুমার দত্ত’র ছেলে শ্রী সসাংক দত্ত, গোদাগাড়ীর পিরিজপুর এলাকার জহির উদ্দিনের ছেলে আবদুল কুদ্দুস, বোয়ালিয়া থানার বিমলেন্দু রায় এর ছেলে বিমান কুমার রায়, বাঘা উপজেলার চেরমান আলীর ছেলে মো. আলাউদ্দিন, পবা উপজেলার বছির উদ্দীন মোল্লা এর ছেলে মো. মেরাজ উদ্দিন মোল্লা, পুঠিয়া উপজেলার নুর মোহাম্মাদ এর ছেলে মো. আব্দুল মজিদ প্রামানিক, বোয়ালিয়া থানার নুরুল হক এর ছেলে মো. নাজমুল ইসলাম, বাগমারা থানার ইনতুল্যা মন্ডল এর ছেলে মো. ইয়াছিন আলী ম-ল, বাগমারা থানার আব্দুর রউফ মন্ডল এর ছেলে এ, কে, এম, মনসুর রহমান, বাগমারা থানার মি. মো. নাছিম উদ্দিন এর ছেলে মো. ফজলুর রহমান, বাগমারা থানার আকবর আলী এর ছেলে আবুল কাশেম, পবা উপজেলার রিয়াজুদ্দীন এর ছেলে মো. গোলাব হোসেন (আমিন উদ্দীন), বাগমারা থানার মৃত মুছাব উদ্দীন মোল্লা এর ছেলে মনির উদ্দীন আহমেদ, রাজপাড়া থানার তোফজজল হোসেন এর ছেলে মো. নূরুল আমীন, পবা উপজেলার আব্দুল বারি তালুকদার এর ছেলে আতাউর রহমান তালুকদার, মতিহার থানার মৃত ফজের আলীর ছেলে মো. আজাহার আলী, পবা উপজেলার মহির উদ্দিন শেখ এর ছেলে আলী মোহাম্মদ, বাগমারা উপজেলার মো. আবের আলী এর ছেলে মো. আবু তালেব, চারঘাট উপজেলার মৃত মজির উদ্দিন এর ছেলে মো. শফিউদ্দিন, শাহ্ মখদুম থানার সৈয়দ আনছার আলী এর ছেলে সৈয়দ আলতাফ হোসেন, চারঘাট উপজেলার মৃত মজিবর রহমান এর ছেলে মো. শমসের আলী, গোদাগাড়ী উপজেলার মরহুম ফাইজ উদ্দিন মন্ডল এর ছেলে মো. জাকারিয়া হোসেন, তানোর উপজেলার মো. আয়েন উদ্দিন মন্ডল এর ছেলে মো. হারুন-আর-রশীদ, চারঘাট উপজেলার মৃত হাজী আরজ উদ্দীন মহলদার এর ছেলে মো. গোলাম রহমান, বোয়ালিয়া থানার সাইফুল আলম এর ছেলে মো. আশরাফুল আলম, বাগমারা থানার মরহুম সদুল্লা মন্ডল এর ছেলে মরহুম মো. খয়ের আলী মন্ডল, রাজপাড়া থানার মোমতাজ উদ্দীন সরকার এর ছেলে মো. ওবাইদুল ইসলাম, শাহ্ মখদুম থানার মৃত মোজাহার আলী এর ছেলে মৃত মাজহার আলী, গোদাগাড়ী উপজেলার শামসুদ্দীন মন্ডল এর ছেলে মো. আব্দুস সালাম, গোদাগাড়ী উপজেলার মোমিন উদ্দীন মন্ডল এর ছেলে মো. রুহুল আমিন, বাগমারা উপজেলার মৃত মতিউল্লাহ মিয়া এর ছেলে মরহুম মনীর উদ্দীন পাইক, পুঠিয়া উপজেলার ইসাহাক খলিফা এর ছেলে কে এম আব্দুর রহিম, বাগমারা উপজেলার মরহুম তমির উদ্দীন প্রামানিক এর ছেলে মো. আব্দুল মালেক প্রামানিক ও মোহনপুর উপজেলার আব্দুল আজিজ সরকার এর ছেলে মো. নজরুল ইসলাম সরকার।

রোববার (৯ মে) মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের তথ্য কর্মকর্তা সুফি মারুফের সই করা সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, এই তালিকা মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের নিজস্ব ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, প্রকাশিত তালিকায় ঢাকা বিভাগের ১ হাজার ৯৪২ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ১ হাজার ৩৪৭ জন, বরিশাল বিভাগের ৫৭৩ জন, খুলনা বিভাগের ৭৭০ জন, ময়মনসিংহ বিভাগের ৫৬৭ জন, রাজশাহী বিভাগের ৬৮৪ জন, রংপুর বিভাগের ৫৭২ জন ও সিলেট বিভাগের ৫৩৩ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা রয়েছেন।
উল্লেখ্য, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের (জামুকা) অনুমোদনবিহীন বেসামরিক গেজেট এ তালিকায় প্রকাশ করা হয়নি। জামুকার অনুমোদনবিহীন গেজেট নিয়মিতকরণ করা হলে পরবর্তীতে তা প্রকাশ করা হবে।
উল্লেখ্য, এর আগে গত ২৫ মার্চ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চূড়ান্ত তালিকার প্রথম পর্ব প্রকাশ করে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়।