ধর্মীয় মৌলবাদের বিরুদ্ধে কবিতা লিখে গণধর্ষণের হুমকি পেলেন কবি মন্দাক্রান্তা সেন!

আপডেট: মার্চ ৩০, ২০১৭, ১২:১৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



একদিকে ‘উগ্র হিন্দুত্ববাদী’ রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘ, অন্যদিকে ‘মুসলিম জেহাদ’ জামাত-এই দুইয়ের বিরুদ্ধেই কলম ধরেছিলেন কবি মন্দাক্রান্তা সেন। ২৭ মার্চ ধর্মীয় মৌলবাদের বিরুদ্ধে কবিতা লিখে নিজের ফেসবুকের দেওয়ালে পোস্ট করেছিলেন সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কার জয়ী কবি। ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই মিলল গণধর্ষণের হুমকি। রাজা দাস নামের এক ব্যক্তি তাঁকে গণধর্ষণের হুমকি দিয়েছে বলে দাবী করেছেন কবি মন্দাক্রান্তা সেন। নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টেই তিনি বুধবার লিখেছেন, “এইসব মা* গুলোই দেশকে শেষ করেছে, একে বিনা কন্ডমে গণ চো** দেয়ার দরকার”। কবি মন্দাক্রান্তাকে গণধর্ষণের হুমকির ঘটনায় নিন্দার ঝড় নাগরিক সমাজে। ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন নাগরিক কবি শ্রীজাত বন্দ্যোপাধ্যায়।
কথায় আছে অসির চেয়ে মসির জোর বেশি। প্রগতিশীল সমাজ এই ভাবধারায় আগেও হেঁটেছে, হাঁটে এখনও। তবে কোথাও যেন আছে বিচ্যুতিও। কলমের টুটি টিপে ধরতে চাইছে মৌলবাদের মসি। ধর্মীয় মৌলবাদের বিরুদ্ধে কলম চালিয়ে জীবন বিসর্জন দিতে হয়েছে ব্লগার রাজীব হায়দার থেকে অভিজিৎ সেনকে। মুক্তমানাদের মুক্ত চিন্তার উড়ানে বারেবারে কাঁটার আঘাত প্রত্যক্ষ করেছে বাংলাদেশ। এই দেশও এবার দেখছে মৌলবাদের ‘অসহিষ্ণু’ রক্তচক্ষু।
কয়েকদিন আগেই ‘বিজেপি বিরোধী’ কবিতা লিখে প্রাণ নাশের মত হুমকি পেয়েছিলেন কবি শ্রীজাত বন্দ্যোপাধ্যায়। ‘ত্রিশূলে কন্ডোম’, এই বক্তব্য ধর্মীয় ভাবাবেগকে আঘাত করেছে, এই অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁর বিরুদ্ধে দায়ের হয়েছে এফআইআর। এবার যেন আবারও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি! এখনও কোনও এফআইআর না হলেও কবি মন্দাক্রান্তা পেলেন গণধর্ষণের হুমকি।
উল্লেখ্য, কবি শ্রীজাত’র পাশে দাঁড়িয়েছিলেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী। “শ্রীজাত’র কিছু হবে না”, সাফ জানিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বামমনস্ক কবি মন্দাক্রান্তা সেনের পাশেও কী ঠিক একই ভাবে দাঁড়াবেন মুখ্যমন্ত্রী, প্রশ্ন সব মহলরেই।- ২৪ঘণ্টাডটকম