ধর্ষণের অভিযোগে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের আইনপ্রণেতা গ্রেফতার

আপডেট: মে ১৮, ২০২২, ১২:১৭ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


ধর্ষণ এবং যৌন নিপীড়নের অভিযোগে যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টের এক আইনপ্রণেতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। কনজারভেটিভ পার্টির এক পুরুষ আইনপ্রণেতাকে গ্রেফতারের কথা নিশ্চিত করা হলেও তার নাম প্রকাশ করা হয়নি।

মেট্রোপলিটন পুলিশ জানিয়েছে, ২০০২ থেকে ২০০৯ সালের মধ্যে এই ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়নের ঘটনা ঘটে। কনজারভেটিভ পার্টি জানিয়েছে, তদন্ত চলা অবস্থায় ওই আইনপ্রণেতাকে পার্লামেন্টে উপস্থিত না থাকতে বলে দিয়েছেন চিফ হুইপ।
ওই আইনপ্রণেতার বিরুদ্ধে বিশ্বাস ভঙ্গ এবং সরকারি কার্যালয়ে অসদাচরণের অভিযোগও রয়েছে।

মেট্রোপলিটন পুলিশের মুখপাত্র ওই পুরুষের পরিচয় নিশ্চিত করতে চাননি কিংবা তিনি আইনপ্রণেতা কিনা তাও নিশ্চিত করতে চাননি। তবে এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, ‘২০২০ সালের জানুয়ারিতে মেট্রোপলিটন পুলিশ ২০০২ থেকে ২০০৯ সালের মধ্যে ঘটে যাওয়া যৌন নিপীড়নের ঘটনা সংশ্লিষ্ট তথ্য পায়। অভিযুক্ত এসব ঘটনা লন্ডনে ঘটেছে’।

পুলিশ মুখপাত্র বলেন, ‘অশ্লীল হামলা, যৌন নিপীড়ন, ধর্ষণ, বিশ্বাসের পদের অপব্যবহার এবং সরকারি অফিসে অসদাচরণের অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছেৃ এক পুরুষকে গ্রেফতার করা হয়েছে।’

কনজারভেটিভ দলের হুইপের কার্যালয় নিশ্চিত করেছে তারা ওই আইনপ্রণেতাকে তদন্ত চলা অবস্থায় পার্লামেন্ট থেকে দূরে থাকতে বলে দিয়েছে। এই কার্যালয়টি দলের শৃঙ্খলার বিষয়টি তদারকি করে থাকে।

ওই কার্যালয়ের মুখপাত্র বলেন, ‘চিফ হুইপ সংশ্লিষ্ট আইনপ্রণেতাকে বলে দিয়েছেন তিনি তদন্ত চলা অবস্থায় পার্লামেন্ট এলাকায় উপস্থিত থাকতে পারবেন না। তদন্ত শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত আমরা আর কোনও মন্তব্য করবো না।’

মেট্রোপলিটন পুলিশ জানিয়েছে, এই ঘটনায় তদন্ত চলছে আর এতে নেতৃত্ব দিচ্ছেন কেন্দ্রীয় অপরাধ বিশেষজ্ঞ ইউনিটের কর্মকর্তারা।
তথ্যসূত্র: বিবিসি, বাংলাট্রিবিউন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ