ধর্ষণ কমানোর উপায় জানালেন অক্ষয় কুমার

আপডেট: মে ৩১, ২০১৭, ১২:০৮ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


একজন শিল্পীর সামাজিক কিছু দ্বায়বদ্ধতা থাকে। ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নায়ক অক্ষয় কুমার এটা মন থেকে বিশ্বাস করেন। সেই দ্বায়বদ্ধতা থেকে দেশে ধর্ষণ কমানোর উদ্যোগ নিয়েছেন অক্ষয়। তিনি দেশের যুবকদের জন্য খুলেছেন বিশেষ অনুদান প্রকল্প। আর এই নায়ক জানিয়েছেন দেশের ধর্ষণ কমানোর উপায়। অক্ষয় বলেছেন, দেশের প্রায় ৩০ শতাংশ ধর্ষণের ঘটনা এড়ানো সম্ভব যদি মহিলাদের খোলা স্থানে শৌচকর্ম করতে না যেতে হয়।
খুব শিগগিরিই আসছে অক্ষয় অভিনীত নতুন ছবি ‘টয়লেট এক প্রেম কথা’। সম্প্রতি সে ছবির এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন অভিনেতা।
তিনি বলেন, তাকে সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত করেছে সত্যি ঘটনা অবলম্বনে তৈরি এই কাহিনি। কেমন করে এক মহিলা শুধুমাত্র বাড়িতে শৌচালয় নেই বলে স্বামীকে ডিভোর্স দিতে প্রস্তুত ছিলেন। এমন চিন্তাধারাই দেশ বদলাতে সক্ষম হবে বলে অভিমত তার। কোথাও তিনি পড়েছিলেন দেশের প্রায় ৫৪ শতাংশ স্থানে ঠিকঠাক শৌচালয় নেই। শৌচালয়ের এই সমস্যা যদি মিটে যায় তাহলে দেশের অন্তত ৩০ শতাংশ ধর্ষণের ঘটনা এড়ানো সম্ভব হবে।
অক্ষয় জানান, কেবলমাত্র শৌচালয় তৈরি করলেই হবে না। মানুষের চিন্তাধারাও পাল্টাতে হবে। অনেক মহিলাই বাড়িতে শৌচালয় থাকা সত্বেও অভ্যাসের বশে খোলা স্থানে শৌচকর্ম করতে যান। দুষ্কৃতীরা তখন নির্জন স্থানে মহিলাদের একা থাকার সুযোগ নিয়ে থাকেন। এমনটা অনেকটাই বন্ধ হওয়া সম্ভব একটু বাড়তি সচেতনতা অবলম্বন করলে।
কেন্দ্র সরকারের উদ্যোগেই তৈরি করে দেওয়া হচ্ছে শৌচালয়। এবার দেশের মানুষের দায়িত্ব এই সুযোগকে ঠিকঠাকভাবে কাজে লাগানোর। এমনটাই অভিমত অভিনেতার।
‘টয়লেট এক প্রেম কথা’ ছবির পরিচালক শ্রী নারায়ন সিংহ। ছবিটি প্রযোজনা করেছেন অরুণা ভাটিয়া। অক্ষয় ছাড়াও ছবিতে অভিনয় করেছেন সানা খান, অনুপম খের। আগামী ১১ আগস্ট ছবিটি মুক্তি পেতে যাচ্ছে।