ধামইরহাট রাসেল ক্লাবে অগ্নি সংযোগ ও মারপিটে বিএনপির ৪ জন আটক

আপডেট: নভেম্বর ২৫, ২০২২, ১১:০৫ অপরাহ্ণ

ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি:


নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলার টিএন্ডটি মোড়ে শেখ রাসেল শিশু কিশোর ক্লাবে হামলা ও অগ্নি কান্ডের ঘটনায় এজাহার নামীয় বিএনপির ৪ জনকে আটক করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানান, টিএনটি মোড়ে রাসেল ক্লাবে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭.২০ মিনিটে একদল মুখোশধারী ২৫/১৬ জনের কিশোর জয় বাংলা স্লোগান দিয়ে রাসেল ক্লাবে হামলা চালিয়ে অগ্নি সংযোগ দেয় ও মারপিট করে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। এতে ওই ক্লাবের ২ জন আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। এরা হলো উদয়শ্রী মিঠুন চক্রবতী (৩০) ও বীরগ্রামের রশিদুল (২৭)। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করেন এবং রাসেল ক্লাবটি সিলগালা করেন। ক্লাবের পক্ষ থেকে থানায় এজাহার দায়ের করা হলে এজাহার নামীয় ১৩ জন ও অজ্ঞাত আরও ২৫ জনের নামে মামলা করা হয়। পুলিশ রাতেই বিএনপির ৪ জনকে আটক করেন। এরা হলো পৌরসভার মঙ্গলকোঠা ইউনুছের পুত্র হাবিবুর (২৫), চকযদু গ্রামের আছির উদ্দীনের পুত্র আশরাফুল (২৬), চকচন্ডি গ্রামের হান্নানের পুত্র আব্দুল মতিন (২৪), আমাইতাড়া গ্রামের আবু কালাম আজাদের পুত্র ওমর ফারুক (২৭) কে আটক করেন। আটককৃত দের শুক্রবার দুপুরে কোর্ট হাজতে প্রেরন করেন। উল্লেখ স্থানীয় ট্রাক, লড়ি সেক্রেটারী আব্দুর রউফ জানান ঘটনার সময় প্রচন্ড ককটেলের শব্দ শোনা গেছে। ক্লাবের সেক্রেটারী বাপ্পী জানান ঘটনার সময় আমি ছিলাম না। পুলিশ তালা দিয়েছে। কি ক্ষতি হয়েছে ঘর না খুললে জানা যাবে না। ফার্মাসিস্ট হামিদুল জানান ওই সময় আমরা মসজিদে এশার নামায পড়ছিলাম, হৈচৈ শুনেছি। হান্নান দোকানদার জানান একদল ছেলে উত্তর দিক থেকে জয় বাংলা স্লোগান (শেখ হাসিনার গদিতে আগুন জ্বালাও এক সাথে) দিয়ে হামলা চালিয়েছে। উত্তম মেকার জানান আমি গেরেজে কাজ করছিলাম, হৈ চৈ ও অগ্নি কান্ডের কথা শুনতে পেরেছি। ডাক্তার আবু বক্কর জানান ক্লাবে নাকি মারামারি হয়েছে। আগুনে কিছু পতাকাও পুড়েছে। আহত রশিদুল জানায় মুখোশধারী কয়েকজন ছেলে আকস্মিক ভাবে আমাকে মারপিট করে। অফিসার ইনচার্জ মোজাম্মেল হক কাজী জানান থানায় মামলা হয়েছে।