ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মারা যান মতিন

আপডেট: মে ১৩, ২০১৭, ১২:৪২ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


জঙ্গি হামলায় নিহত ফায়অর সার্ভিস কর্মী মতিন- সোনার দেশ

রাজশাহীর গোদাগাড়ীর বেনীপুরে জঙ্গি আস্তানা ঘেরাও করার সময় ফায়ার সার্ভিসের কর্মী আবদুল মতিনের মৃত্যু হয় দেশিয় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে। এসময় জঙ্গি আস্তানা থেকে আকস্মিকভাবে বেরিয়ে পড়েন সাজ্জাদের স্ত্রী বেলি, মেয়ে কারিমা, ছেলে আল আমিন এবং প্রকৌশলী আশরাফুল। বের হয়েই বেলি আবদুল মতিনকে ধারালো হাঁসুয়া দিয়ে কোপান। এসময় মেয়ে কারিমার হাতে ছিলো শাবল। আর সাজ্জাদ ব্যবহার করেন আরেক দেশিয় বল্লম। গোদাগাড়ি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হিফজুর আলম মুন্সী এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।
ওসি জানান, অভিযানের শুরুতে বৃহস্পতিবার ভোরে পুলিশ বাড়িটি ঘেরাও করার পর মাটির দেয়াল পানি দিয়ে ভেজানোর চেষ্টা করছিলেন ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা। দেয়াল ভেঙে বাড়ির ভেতর যাওয়ার পরিকল্পনা ছিল। এসময় দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ফায়ার সার্ভিস কর্মী মতিনের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে জঙ্গিরা। এর পরপরই শক্তিশালী বোমার বিস্ফোরণ ঘটে। পাঁচ জঙ্গি বোমায় আত্মঘাতী হয়।