নওগাঁর মান্দায় করোনা উপসর্গ নিয়ে কৃষকের মৃত্যু

আপডেট: এপ্রিল ১০, ২০২০, ১১:২৪ অপরাহ্ণ

নওগাঁ প্রতিনিধি


নওগাঁর মান্দায় করোনা উপসর্গ নিয়ে সোলাইমান কাজি নামে ৫৮বছর বয়সী এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। সোলাইমান কাজি উপজেলার পরানপুর ইউনিয়নের সুনাপুর গ্রামের মৃত জবুলাল কাজির ছেলে।
রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক সাইফুল ফেরদৌস জানান, গত বুধবার শ্বাসকষ্ট, জ্বর, কাশি, ব্যথা ও ডায়রিয়া রোগ নিয়ে রাজশাহী মেডিকেলে ভর্তি হন সোলাইমান। এরপর অবস্থার অবনতি হলে তাকে আইসোল্যুশনে রাখা হয়। তিনি আরো জানান, যেহেতু তার মধ্যে করোনার কিছু উপসর্গ ছিল তাই তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। রেজাল্ট আসলে জানা যাবে যে তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন কি না।
অপরদিকে জেলার মহাদেবপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের দাউল বারবাকপুর গ্রামের সরদার পাড়াকে বাধ্যতামূলক হোম কোয়ারেন্টাইন করেছেন উপজেলা প্রশাসন। বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মিজানুর রহমান ওই পাড়ার ১২টি বাড়ির লোকজনকে বাধ্যতামূলক হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেন।
জানা গেছে, ওই পাড়ার শরিফুল ইসলামের ছেলে এনজিও কর্মী পারভেজ আক্তার সজল (২৯) বগুড়ার শেরপুরে তার কর্মস্থলে থাকা অবস্থায় সর্দি, জ্বর, গলা ব্যথা এবং কাশি দেখা দেয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা নেয়ার পর সজল অসুস্থ অবস্থায় নিজ গ্রামের বাড়ি আসে। সজলের শারীরিক অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় তার গ্রাম জুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। সজলের শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ যাচাইয়ের লক্ষে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ খবর পেয়ে ওইদিন বিকেলে সজলের পরিবারসহ তার পাড়ার ১২টি বাড়ির লোকজনকে বাধ্যতামূলক হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ প্রদান করা হয় বলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মিজানুর রহমান জানান।