নওগাঁয় আইনজীবী লাঞ্ছিতের ঘটনায় চার পুলিশ সাময়িকভাবে বরখাস্ত

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০২১, ৯:০১ অপরাহ্ণ

নওগাঁ প্রতিনিধি:


নওগাঁ কোর্ট চত্বরে পুলিশ কর্তৃক আইনজীবীকে মারধর ও লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনায় আইনজীবীদের প্রতিবাদ কর্মসূচির ১৪ দিন পর প্রত্যাহার করা হয়েছে। পুলিশ সুপার কর্তৃক গঠিত তদন্ত কমিটির তদন্তসাপেক্ষে দোষি ৪ জন পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ নিশ্চিত হওযায় আইনজীবীরা তাদের কর্মসূচি প্রত্যাহার করেছেন। সোমবার বিকেলে বার অ্যাসোসিয়েশন মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের সভাপতি অ্যাড. সরদার সালাহ উদ্দিন মিন্টু কর্মসূচি প্রত্যাহারের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা প্রদান করেন। এসময় জেলা বার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো. আশফাকুর রহমান রবসহ কার্যনির্বাহী কমিটির সকল সদস্য উপস্থিত ছিলেন।
তিনি বলেন, গত ১ ফেব্রুয়ারি কোর্ট চত্বরে প্রবেশ করার সময় পরিচয় দেয়ার পরও জেলা অ্যাডভোকেট বার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য আবু সাঈদ মুরাদকে পুলিশ প্রবেশ করতে বাধা প্রদান করে। এ সময় বাক বিতন্ডার এক পর্যায় সেখানে উপস্থিত পুলিশ সদস্যরা সম্মিলিতভাবে মুরাদের উপর হামলা চালায়। রাইফেলের বাটসহ লাঠিসোটা দিয়ে বেদম প্রহার করে মারাত্মকভাবে আহত করে। এই ঘটনায় তাৎক্ষণিকভাবে আইনজীবীরা জরুরি সাধারণ সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত মোতাবেক আদালতের কার্যক্রম বন্ধসহ বিভিন্ন প্রতিবাদ কর্মসূচির ডাক দেয়। এই কর্মসূচির অংশ হিসেবে ৪দিন পুরোপুরি কলম বিরতি পালন করেন। পরবর্তী দিনগুলোতে কালোব্যাচ ধারণ, বার ভবনে কালো পতাকা উত্তোলন ও মৌন মিছিলসহ নানা কর্মসূচি অব্যাহত রাখেন।
সেদিন কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যদের ক্লোজ করে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রকিবুল আকতারের নেতৃত্বে ৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে বিষয়টি খতিয়ে দেখার নির্দেশ দেন পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান মিয়া। কমিটির তদন্ত শেষে দোষি প্রমাণিত হওয়ায় ঘটনার সাথে জড়িত ৪ পুলিশ সদস্যকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট প্রেরণ করা হয়।