নওগাঁয় এক সপ্তা থেকে নিখোঁজ এক চাল ব্যবসায়ী

আপডেট: মার্চ ২৩, ২০১৭, ১২:৪০ পূর্বাহ্ণ

নওগাঁ প্রতিনিধি


নওগাঁয় পাওনা টাকা নিতে গিয়ে গত এক সপ্তা ধরে হদিস মিলছে না এক চাল ব্যবাসায়ীর। নিখোঁজ ব্যবসায়ী নাজমুল হুদা শহরের বাঙ্গাবাড়িয়া ডিগ্রি কলেজের পিছনের বাসিন্দা।
তিনি গত ১৬ মার্চ দুপুরে বাসা থেকে বের হয়ে যান। চালের পাওনা টাকা নিতে তিনি শহরের আলু পট্টিতে যাচ্ছেন বলে বাসায় বলে যান। নিখোঁজ নাজমুল হুদার স্ত্রী বিলকিছ আকতার এ ঘটনায় পরদিন নওগাঁ সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।
বিলকিছ আকতার জানান, ওইদিন বাসা থেকে যাওয়ার পর বিকেল ৩টা ৪০ মিনিটে তার (নাজমুল হুদার) মোবাইলে শেষ কথা হয়। এরপর থেকে তার ব্যবহৃত দুইটি মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়। নাজমুল হুদা চালের ব্যবসা করতেন বলে জানান স্বজনরা।
নিখোঁজের স্বজনরা জানান, ঘটনার দিন শহরের আলুপট্টিতে আবদুর রহমানের কাছে যাচ্ছেন বলে বাসায় বলে যান। ব্যবসায়ীক কারবারে নাজমুল হুদা আবদুর রহমানের কাছে প্রায় ৯ লাখ টাকা পান। এ টাকা নিতে গিয়ে সেদিন তিনি নিখোঁজ হন। এ ঘটনার পর আবদুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করলে নাজমুল হুদা তার কাছে যাই নি বলে জানান।
ঘটনার পর বিলকিছ আক্তার থানায় অভিযোগ দেয়। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ মোবাইল কল ট্র্যাক করে আবদুর রহমানের চাচাত বোন রুজিনাকে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দেন । নওগাঁ সদর থানার ওসি তোরিকুল ইসলাম জানান, বিষয়টি নিয়ে অনুসন্ধান চলছে। নাজমুল হুদাকে অপহরণ করা হয়েছে নাকি অন্য কিছু তা খতিয়ে দেখতে কাজ করছে পুলিশ।
নিখোঁজ নাজমুল হুদা দীর্ঘ ১২ বছর সৌদি আরবে ছিলেন। সেখান থেকে এসে প্রথমে ঠিকাদারী এরপর চালের ব্যবসা করতেন বলে জানান নাজমুল হুদার ছেলে বায়োজিদ হুদা।