নওগাঁয় গলা ও পায়ের রগকাটা এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করলো পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২১, ৯:৩৮ অপরাহ্ণ

নওগাঁ প্রতিনিধি:


নওগাঁয় নিজ বাড়ির টিনের চালার উপরে ওঠে ধারালো হাসুয়া দিয়ে নিজের হাত-পায়ের রগ, গোপনাঙ্গ ও গলা কাটার সময় স্থানীয়দের সহযোগিতায় গুরুতর জখম ব্যক্তিকে উদ্ধার করেছে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা। ঘটনাটি ঘটেছে নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার চেরাগপুর ইউনিয়নের মাইবা দিঘী (পাহান পাড়া) গ্রামে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মাইবা পাহান পাড়া গ্রামের মৃত অজিত পাহানের ছেলে বিষু পাহান হঠাৎ করে বৃহস্পতিবার ভোররাতে পরিবারের লোকজনের অজান্তে হাতে একটি ধারালো হাসুয়া নিয়ে নিজ বাড়ির টিনের চালার উপর ওঠে বসে পড়েন। এক পর্যায়ে বিষু পাহানের স্ত্রী জোসনা পাহান স্বামীকে ঘরে দেখতে না পেয়ে ঘর থেকে বের হলে এসময় টিনের চালার উপর থেকে তার স্বামী স্ত্রীর উদ্দেশ্যে বলেন, আমি এখানেই আছি কেউ আমাকে নামানোর চেষ্টা করলে আমি তাদের শেষ করে দিব। ঘটনাটি প্রতিবেশীদের জানালে প্রতিবেশী ও স্বজনরা বাড়ির নিচে অবস্থান নিয়ে বিষু পাহানকে পাহাড়ায় রাখেন এবং সকালে ঘটনাটি পুলিশ ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে জানান। খবর পেয়ে নওহাটামোড় পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে পৌছান এরপর নওগাঁ থেকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরাও ঘটনাস্থলে পৌছালে এসময় টিনের চালার উপর থাকা বিষু পাহান সবাইকে উদ্দেশ্য করে চিৎকার দিয়ে বলতে থাকেন, যে আমাকে নামাতে আসবে তাকেই আমি হাসুয়া দিয়ে শেষ করে দিব এবং নিজেও শেষ হবো। এমন অবস্থায় পুলিশ প্রশাসন ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা বিভিন্নভাবে কৌশল খাটিয়ে বাড়ির টিনের চালা থেকে বিষু পাহানকে উদ্ধার করেন। এসময় টিনের চালার উপর বিষু পাহান তার হাতে থাকা ধারালো হাসুয়া দিয়ে একের পর এক হাত-পায়ের রগ ও গোপনাঙ্গসহ গলা কাটতে শুরু করেন। অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ও পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা করা হয়। পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মাঝে মধ্যেই বিষু পাহান এমন উগ্র আচরন করে। তবে সে সময় চিকিৎসা করানোর পরই গত এক বছর সে ভালোই ছিলো কিন্তু হঠাৎ করেই আবার এমন ঘটনা ঘটালো। মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে বিষু এমন ঘটনা ঘটিয়েছে।
মহাদেবপুর থানার পরিদর্শক নজরুল ইসলাম জুয়েল বলেন, ঘটনাটি আমি জেনেছি, যদিও বা স্থানীয়রা বলছেন যে বিষু পাহান হঠাৎ করেই মানুসিক ভারসাম্যহীন হয়ে এমন ঘটনা ঘটিয়েছেন, তারপরও ঘটনাটিকে গুরুত্বসহকারে দেখা হচ্ছে। কারন বিষু পাহান কি কারনে এমনটা করলেন সেটিও খতিয়ে দেখা হবে বলে তিনি জানান।