নওগাঁয় সড়কে প্রাণ গেল চার শিক্ষকসহ পাঁচজনের

আপডেট: জুন ২৪, ২০২২, ১০:০০ অপরাহ্ণ

 

নওগাঁ প্রতিনিধি:


নওগাঁয় ট্রাক, ট্রাক্টর ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার সংঘর্ষে চার শিক্ষকসহ পাঁচজন নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (২৪জুন) সকাল সাড়ে আটটার দিকে নওগাঁ সদর উপজেলার বাবলাতলী এলাকায় নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কে এ দূর্ঘটনা ঘটে। নিহতের মধ্যে একজন নারীসহ চারজনই মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক এবং অপরজন সিএনজি অটোরিক্সা চালক ছিলেন।

পুলিশ ও নিহতদের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, নিহত ওই চার শিক্ষক সবাই মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক। তারা হলেন নিয়ামতপুর উপজেলার পানিহারা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ও উপজেলার বাদ নেহেন্দা গ্রামের বাসিন্দা দেলোয়ার হোসেন (৪৭), বেলকাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ও নিয়ামতপুরের বিজলী গ্রামের বাসিন্দা মকবুল হোসেন (৫৮), উপজেলার গুজিশহর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ও ভাদর- গ্রামের বাসিন্দা জান্নাতুন (৩৫) এবং উপজেলার রামকুড়া দাখিল মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা মো. লেলিন (২৬)। নিহত অপরজন হলেন নিয়ামতপুরের ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের অটোরিকশাচালক সেলিম (৪৫)।

এই ঘটনায় নুর জাহান (৩২) নামে আরও একজন শিক্ষিকাকে গুরুত্বর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে নওগাঁ সদর হাসপতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসা জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। নুর জাহান নিহত প্রাথমিক স্কুল শিক্ষক জান্নাতুল ফেরদৌসের বোন। তারা বিষয় ভিত্তিক সৃজনশীল প্রশ্ন পদ্ধতিতে প্রশ্নপত্র প্রণয়ন ও উত্তরপত্র মূল্যায়ন বিষয়ে ট্রেনিং নেওয়ার জন্য নওগাঁ নামাজগড় গাউছুল আজম কামিল মাদ্রাসায় যাচ্ছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সকাল অনুমান সাড়ে ৮টায় ঘটনাস্থলে নওগাঁর দিক থেকে মাছের ফিড বোঝাই ঢাকা-মেট্টো-ট-১৬-৫৬১৮ নম্বরের একটি ট্রাক রাজশাহীর দিকে এবং যাত্রী বোঝাই সিএনজি চালিত অটোরিক্সা নিয়ামতপুর থেকে নওগাঁর দিকে আসছিল।

ট্রাক ও সিএনজি চালিত অটোরিক্সা বাবলাতলীর মোড়ে পৌছালে হঠাৎ করে বলিহার সংযোগ সড়ক থেকে একটি মাটি বোঝাই ট্রাক্টর মহাসড়কে উঠে পড়ে। এ সময় ট্রাক্টরকে সাইড দিতে গিয়ে ট্রাক এবং সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষ বাধে। ট্রাকটি যাত্রী বোঝাই সিএনজিকে পিষ্ট করে ওই পিষ্ট হওয়া সিএনজি সাথে নিয়ে পাশের গভীর জলাশয়ে পড়ে যায়। এতে সিএনজি দুমড়ে মুচড়ে যায়।

উদ্ধার কাজে অংশগ্রহণকারী ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন ইনচার্জ মো. শফিউল ইসলাম জানান, সংবাদ পাওয়ার সাথে সাথে তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করে। পরে মান্দা ফায়ার সার্ভিসের আরো একটি টিম ঘটনাস্থলে এসে যোগ দেয়। পরে নওগাঁ ও মান্দা ফায়ার সার্ভিস টিম যৌথ ভাবে উদ্ধার কাজ পরিচালনা করে।

ট্রাকের চাপায় সিএনজি দুমড়ে মুচড়ে গিয়ে পানির নিচে ডুবে ছিল। সিএনজির বিভিন্ন অংশ পৃথক পৃথক ভাবে কেটে কেটে ভিতর থেকে একটি একটি করে পাঁচটি লাশ বের উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। উদ্ধারকৃত মরদেহ গুলো ফায়ার সার্ভিস নওগাঁ সদর মডেল থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে তাদের উদ্ধার অভিযান সমাপ্ত করেছে।

নওগাঁর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জুয়েল জানান, এই মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নওগাঁ সদর মডেল থানায় একাটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে নিহতদের পরিবারের কাছে লাশগুলো হস্তান্তর করা হয়েছে। আর এই ঘটনায় ট্রাকের চালক পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

এদিকে, নওগাঁ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মির্জা ইমাম উদ্দিন জানান, নিহত প্রতিটি পরিবারকে দুর্যোগ ও ত্রান মন্ত্রনালয়ের আওতায় ২৫ হাজার টাকা করে অনুদান প্রদান করা হবে। আর নিহতদের পারিবারিক অবস্থা বিবেচনা করে জেলা প্রশাসকের তহবিল থেকে প্রয়োজনে আরো অনুদান প্রদান করা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ