নওগাঁ-২ আসনে নির্বাচনী প্রচার কাজে সরব স্বতন্ত্র প্রার্থী আখতারুল আলম

আপডেট: ডিসেম্বর ২৪, ২০২৩, ৯:৫১ অপরাহ্ণ


নওগাঁ ও ধামইরহাট প্রতিনিধি:


ভারতীয় সীমান্তবর্তী উপজেলা ধামইরহাট ও পত্নীতলা নিয়ে গঠিত নওগাঁ-২ আসন। জাতীয় উদ্যান আলতাদীঘি, জগদ্দল বিহার, দিবরদীঘিসহ অসংখ্য ঐতিহাসিক নিদর্শন সম্বলিত আসন এটি। এই আসনে সরকার দলীয় প্রার্থীর পাশাপাশি আ’লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জেলা আ’লীগের সাবেক সদস্য এইচ এম আখতারুল আলম ট্রাক প্রতিক নিয়ে নির্বাচনের মাঠে সরব রয়েছেন।

নওগাঁ-২ আসনকে একটি স্বচ্ছ ভাবমূর্তির, স্বজনপ্রীতি, ঘুষ, দুর্নীতিবিহীন রাজনীতির রীতি চালু করতে আ’লীগের একজন কর্মী হিসেবে দীর্ঘদিন যাবত কাজ করে আসছেন এইচ এম আখতারুল আলম। এর আগেও একাধিক জাতীয় নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন তিনি। আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও সরকার দলীয় প্রার্থী হিসেবে মনোনিত না হওয়ার কারণে এই আসনের জনগনের চাওয়ার ভিত্তিতেই স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন আখতারুল আলম। আপিলের মাধ্যমে আদালতের আদেশে গত ২০ডিসেম্বর প্রার্থীতা ফিরে পেয়েই ট্রাক প্রতিক নিয়ে মাঠে নেমেছেন তিনি।

শুক্রবার জুমার নামাজের পর নিজের পিতা-মাতার কবর জিয়ারতের পর আনুষ্ঠানিক নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণার কাজ শুরু করেছেন তিনি। এরপর পত্নীতলা উপজেলার নতুন হাট এলাকায় নির্বাচনী অফিসের উদ্বোধন শেষে গনসংযোগ করেন। পরে সন্ধ্যায় তিনি উপজেলার মধুইল এলাকাতেও নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে লিফলেট বিতরণ করার পাশাপাশি গণসংযোগ করেন। প্রচন্ড শীতকে উপেক্ষা করে তিনি প্রতিদিনই সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন।

নির্বাচনে অংশ নেয়া বিষয়ে আখতারুল আলম বলেন বর্তমান এমপি শহিদুজ্জামান সরকার বাবলুর চারপাশে থাকা পঞ্চপান্ডবের শোষন আর দুর্নীতির হাত থেকে এই আসনের নিরীহ মানুষদের রক্ষা করতেই মূলত তার নির্বাচনে অংশ নেয়া। নওগঁ-২ আসনকে ঘুষ ও দুর্নীতি বিহীন এক উপজেলা হিসেবে গড়ে তোলার যোদ্ধা হিসেবে এই আসনের মানুষ আমাকে বেছে নিয়েছেন। আমি শতভাগ আশাবাদি যে যদি ভোটাররা ভোট প্রদানের জন্য সুষ্ঠ ও শান্তিপূর্ন পরিবেশ পায় তাহলে তারা ট্রাক প্রতিকে ভোট দিয়ে বিপুল ব্যবধানে আমাকে নয় আমার নেত্রী শেখ হাসিনার গলায় বিজয়ের মালা পড়িয়ে দিবেন।