নগরীতে একদিনে ৫৪ জন করোনা রোগি শনাক্ত

আপডেট: June 26, 2020, 12:41 am

নিজস্ব প্রতিবেদক:



রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল দুই ল্যাবে বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) ৬০ জনের করোনা রোগি শনাক্ত হয়েছে।

এরমধ্যে রাজশাহী নগরীতে ৫৪ জন শনাক্ত হয়। এ নিয়ে নগরীতে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ২৮৪ জন। ২৪ জুন পর্যন্ত জেলা সিভিল সার্জনের তথ্য মতে, নগরীতে করোনা রোগি শনাক্ত ছিল ২৩০ জনে।

 

 

আক্রান্তরা হলেন, নগরীর ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের মোসলে উদ্দিন (৬৮), রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারের কারারক্ষী সৈয়দ মাসুদ আলী (৩৮), নাটোরের লালপুরের লিটন মিয়া, রামেক হাসপাতালে চিকিসাধীন বাগমারা আল আমিন (২১), রামেক হতাসপাতালের চিকিৎসক ডা. মোমেনা খাতুন (৪০), নগরীর ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের রিয়াজুল ইসলাম (২৮), রামেক হাসপাতালের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কর্মচারী শহীদুল (৫০), নগরীর কাজীহাটা এলাকার বিদুৎ (২৫), রামেক হাসপাতালের ২৯/৩০ নম্বর ওয়ার্ডের চিকিৎসক সাকলায়েন (৩১), একই ওয়ার্ডের আব্দুর রহিম (৫৫), রামেক হাসপাতালের ইমতাজুল (৫৪), রাসিকের ভেটেনারি কর্মকর্তা ফরহাদ হোসেন, নগরী ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের মোছা. তাজ সুলতানা (৩৪), নগরীর ২১ নম্বর ওয়ার্ডের গোলাম আজম হিরা (৬০), নগরীর ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মাসুমা (৩৮), নগরীর পুলিশ লাইনস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন পুলিশ সদস্য শ্রী বিকাশ চন্দ্র (৩৩), পুলিশ সদস্য ইকবাল হোসেন (২৮), পুলিশ সদস্য প্রদীপ কুমার মন্ডল (৪২), পুলিশ সদস্য মাসুদ রানা (২৬), পুলিশ সদস্য মাজিদুর রহমান (৪১), নারী পুলিশ সদস্য উম্মে রুমানা (৩২), পুলিশ সদস্য তোবারক হোসেন (৪৮), নারী পুলিশ সদস্য শাহানা সুলতানা (৪১), রাজশাহীর মিশন হাসপাতালের মাহফুজ (৩৫), নগরীর ৩ নম্বর ওয়ার্ডের শামসুন নাহার (৮০), নগরীর ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের হাবিবুর রহমান (৩২), নগরীর ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের হাবিবুর রহমান (২৭), একই নম্বর ওয়ার্ডের রুবেল (২৩), নগরীর ২২ নম্বর ওয়ার্ডের তৃপ্তি ভট্ট (৪৭), তার ছেলে আরজু ভট্ট (১৮), নগরীর ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মাহফুজ হক (৩৭), নগরীর ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের রাজিয়া সুলতানা (৪৭), নগরীর ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের শাহিদা বেগম (৬৫), নগরীর ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মাহফুজুল হক (৪০), একই নম্বর ওয়ার্ডের শিশু আহিয়ান (০২), সখিনা বেগম (৫৪), আবদুর সুকুর (৬২) ও নগরীর ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের এম এস আই সাইফুল্লাহ (৫৯)।

 

এদিকে রাজশাহীর তানোর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সুশান্ত কুমার মাহাতো। বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) রাজশাহী মেডিকেল কলেজের (রামেক) ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় তার করোনা শনাক্ত হয়। ইউএনও সুশান্ত কুমার মাহাতো বর্তমানে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একটি বিশেষ কক্ষে চিকিৎসাধীন। করোনার উপসর্গ নিয়ে বুধবার (২৪ জুন) তিনি হাসপাতালে ভর্তি হন। এরপর তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়।
রামেকের ল্যাব সূত্রে জানা গেছে, এই ল্যাবে এ দিন মোট ৩৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়। এর মধ্যে রাজশাহী মহানগরীর ১৭টি এবং তানোরের পাঁচটি নমুনা করোনা পজিটিভ। তানোরের পাঁচজনের মধ্যে একজন ইউএনও।

 

এছাড়া তানোর উপজেলা ডেভলেপমেন্ট ফ্যাসিলিটেটর (ইউডিএফ) এএইচএম ফেরদৌস জামানেরও করোনা পজিটিভ এসেছে। তিনি সার্বক্ষণিক ইউএনও’র সাথেই থাকতেন। বাকি তিনজন তানোরের সাধারণ মানুষ। জানা গেছে, ইউএনও সুশান্ত কুমার মাহাতোর স্ত্রী এবং ছেলেরও জ্বর আছে। পরীক্ষার জন্য তাদেরও নমুনা সংগ্রহ করা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ