নগরীতে কাঠের গুল বিক্রিতে ব্যস্ত ব্যবসায়ীরা

আপডেট: আগস্ট ২৯, ২০১৭, ১২:৫৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


নগরীর শালবাগান এলাকায় কাঠের গুলের পসরা সাজিয়েছেন এক ব্যবসায়ী-সোনার দেশ

আর মাত্র কয়েকটা দিন, তারপরেই কোরবানি ঈদ। কোরবানির ঈদ মানেই মাংস দিয়ে রসনা তৃপ্তির নানা আয়োজন। কাজেই এই ঈদে মাংস কাটা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। অনেকেই গরু কোরবানি দেওয়ার পর নিজেরাই বাসায় বসে মাংস কাটার ব্যবস্থা করেন। সেক্ষেত্রে অবশ্যই প্রয়োজনীয় কিছু জিনিস যেমন ছুরি, চাপাতি, দা, বটি, গুল ও পাটি ইত্যাদি ধুয়ে সুন্দর করে গুছিয়ে রাখতে হবে। এজন্য বিশেষ করে নগরীরতে কাঠের গুল ও পাটির পসড়া বসিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। এগুলো আত্রাই উপজেলার শিকদার হাট ও বাগমারার হাটগাঙ্গপাড়া থেকে আমদানি করছেন বলে জানান ব্যবসায়ীরা। ঈদের দিন কোরবানীর পশু জবাই করার সময় এবং জবাই হয়ে যাবার পর মাপমতো কাটাকুটির প্রয়োজনে এসব অতি প্রয়োজনীয় এসব জিনিস হাতের কাছে চাইলেই যেন পাওয়া যায়। এজন্য বিভিন্ন এলাকায় দোকানে গোস্ত কাটার গুল, খেজুর পাটি বিক্রির করছেন ব্যবসায়ীরা। নগরীতে কয়েক ধরনের কাঠের গুল পাওয়া যাচ্ছে। ছোট-বড় মিলিয়ে ১০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে গোশত কাটার গুল ও খেজুরের পাটি ১০০ থেকে ১৫০ টাকার মধ্যে বিক্রি হচ্ছে।
এ বিষয়ে নগরীর শালবাগান এলাকার কাঠের গুল ব্যবসায়ী নাসির হোসেন বাবু বলেন, ঈদ উল আযহা উপলক্ষে কাঠের গুল বিভিন্ন অঞ্চল থেকে সরবরাহ করা হয়েছে। এবছর বেচাবিক্রি ভালই হচ্ছে। প্রতিদিনই বিক্রি বাড়ছে। ক্রেতার চাহিদা রয়েছে প্রচুর। গোশত কাটার জন্য বিভিন্ন সাইজের কাঠের গুল ১শ থেকে ১  হাজার টাকার মধ্যে বিক্রি করছি। এছাড়া খেজুরের পাটি, জবাই করা ও চামড়া ছেলা চাকু বিক্রি করা হচ্ছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ