নগরীতে ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির ২৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠিত

আপডেট: জানুয়ারি ২০, ২০২০, ১২:৫২ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


নগরীতে ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে র‌্যালি সোনার দেশ

‘ধর্ম নিরপেক্ষ মানবিক সমাজ গড়ে তুলুন’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির ২৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। জেলা ও নগর নির্মূল কমিটির আয়োজনে গতকাল রোববার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত করা হয়। এর মধ্যে সকাল আটটায় শহিদ জননী জাহানারা ইমামের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানানো হয়। বিকেল চারটায় এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে বঙ্গবন্ধু চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান আলী বরজাহানের আহ্বানে সভায় সদস্য সংগ্রহ ও সাংগঠনিক মাস উদ্বোধন ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
এ সময় বক্তারা বলেন, ‘শহিদ জননী জাহানারা ইমামের যে আন্দোলন, এই আন্দোলনে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের একটি পর্যায় শেষ হয়েছে। আমরা এখন মুজিববর্ষ পালন করছি। বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী পালন করছি। আগামি বছর আমরা স্বাধীনতার ৫০তম বছর পালন করতে যাবো।
বক্তারা বলেন, ‘এই সময়ে আমরা দাবি রাখি সরকারের কাছে যেন ৭২ এর সংবিধানকে পুনঃবর্তন করে কোনোরকম খন্ডিত না করে এবং বাংলাদেশে এই উন্নয়নের সময়ে নানানভাবে মানুষের মুক্তবুদ্ধিকে বন্ধ করার চেষ্টা করছে ্একটি গোষ্ঠি। তারা জামাত-শিবির, তারা যুদ্ধাপরাধী, আমরা চাই সরকার আরো ভালোভাবে এই বিষটি যেন নজর রাখে।
বক্তারা জানান, ‘বর্তমানে নানান সামাজিক মাধ্যমে গুজব রটিয়ে সংখ্যালঘু মুক্তবুদ্ধির চর্চা করে এমন মানুষকে লক্ষ করে হামলা করা হচ্ছে। আহমদিয়া মসজিদে হামলা করা হচ্ছে। এই ধরনের মন মানসিকতাকে আমরা বর্জনের আহ্বান জানাই। সরকার যেন এই সকল গোষ্ঠিগুলোর প্রতি কঠোরভাবে নজর রাখে। তাদের সকল ষড়যন্ত্রকে যেন কঠোরভাবে রুখে দেয়।
এ সময় বক্তব্য দেন, ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় সহ-সম্পাদক উপাধ্যক্ষ কামরুজ্জামান, শিক্ষক নেতা অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, নির্মূল কমিটির আহ্বায়ক মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান আলী বরজাহান, কমিটির সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ রাজকুমার সরকার, মুক্তিযুদ্ধ পাঠাগারের আহ্বায়ক লতিফুর রহমান চঞ্চল, নগর নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক সুজিত সরকার, সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান উজ্জল, সহ-সভাপতি নজরুল ইসলাম, সহ-সম্পাদক মনিরুজ্জামান মানিক, স্টুডেন্ট ফ্রন্ট নেতা সহিমা খাতুন, মহিউদ্দিন মিঠু, শাহ আলম বাদশা প্রমুখ। উল্লেখ্য নতুন বছরে এবার ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির ২৫ হাজার সদস্য সংগ্রহ অভিযানের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ