নগরীতে ছুরিকাঘাতে যুবক খুন ।। হামলাকারীদের সহযোগীকে পিটিয়ে পুলিশে সোপর্দ

আপডেট: নভেম্বর ৩০, ২০১৬, ১২:০৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক



নগরীর উপকণ্ঠ বুলনপুর এলাকায় প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে রাসেল আলী (১৯) নামে এক যুবক খুন হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর দুইটার দিকে বুলনপুর মন্দিরের সামনে এ ঘটনা ঘটে। নিহত রাসেল বুলনপুর ঘোষপাড়া এলাকার হাফিজুল ইসলাম দুদুর ছেলে। এ ঘটনায় হামলাকারীদের সহযোগী হিসেবে পুলিশ শাকিল নামে এক যুবককে আটক করেছে। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিহত রাসেলের স্বজনরা শাকিলকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন।
নিহতের স্ত্রী তিশা খাতুন (১৮) জানান, তার স্বামী জীবন বীমা করপোরশনে দৈনিক মজুরি ভিত্তিতে কর্মী হিসেবে কাজ করতেন। দুপুরে তিনি নগরীর লক্ষ্মীপুর এলাকায় অফিস থেকে বাসায় খেতে যাচ্ছিলেন। পথে বুলনপুর মন্দিরের সামনে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ওই এলাকার রবিউল ইসলামের ছেলে হৃদয় হোসেন (২০) ও মোজাম্মেল হোসেনের ছেলে মুন্না হোসেন (২২) রাসেলকে ধরে মারপিট শুরু করেন। একপর্যায়ে তারা ছুরি দিয়ে রাসেলের বুকে আঘাত করেন। এসময় তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়লে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।
রামেক হাসপাতাল পুলিশ বক্সের সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) এমদাদুল হক জানান, দুপুর ২টার দিকে রাসেলকে জরুরি বিভাগে নিয়ে আসেন তার স্বজনরা। এ সময় রাসেলকে চার নম্বর ওয়ার্ডে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
তিনি জানান, হাসপাতালে শাকিল হোসেন (২৩) নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে। শাকিল বুলনপুর এলাকার মাসুদ পারভেজের ছেলে। তিনি হামলাকারীদের পক্ষে হাসপাতালে রোগির অবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে এসেছিলেন। রাসেলের স্বজনরা তাকে দেখে মারপিট শুরু করেন। এ সময় তাকে আটক করে রাজপাড়া থানায় পাঠানো হয়।
রাজপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আমান উল্লাহ জানান, তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে আলামত সংগ্রহ করেছেন। এ ঘটনায় শাকিল নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর রাসেলের মরদেহ নিকটাত্মীয়দের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।