নগরীতে তৃতীয় লিঙ্গের ১৩ জনের ভাতা তুলে নিল প্রতারক চক্র

আপডেট: ডিসেম্বর ৫, ২০২২, ১১:১১ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহীতে ১৩ জন তৃতীয় লিঙ্গের (হিজড়া) জন্য সমাজসেবা কার্যালয় থেকে দেয়া সরকারি ভাতা মোবাইল ব্যাকিং থেকে তুলে নিয়েছে প্রতারক চক্র। এ ঘটনায় রোববার (৪ ডিসেম্বর) বিকেলে মহানগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে।

‘দিনের আলো হিজড়া সংঘের’ সভাপতি মোহনা মঈন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
জিডিতে উল্লেখ করা হয়েছে, দিনের আলো হিজড়া সংঘের সদস্যদের নগদ একাউন্টে রাজশাহী সমাজসেবা কার্যালয় থেকে ১ হাজার ৮০০ টাকা করে সরকারি ভাতা প্রদান করা হয়। গত শনিবার (৩ ডিসেম্বর) অজ্ঞাত ব্যক্তি ঢাকা সমাজসেবা কার্যালয়ের কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে ফোন করেন। এই তিনটি নম্বর থেকে বিভিন্ন সময়ে ফোন আসে- ০১৬১৮০৫৫৮৯১, ০১৬১৪৪৭৩৪৫৫, ০১৮১৫৪০৫৫৫৬।

ফোন করে নগদ একাউন্টে ভাতা প্রদানের কথা বলে এবং পাঠানো ওটিপি নম্বর নেয়। এরপর তাদের নগদ একাউন্ট শূন্য হয়ে যায়। এভাবে ১৩ জনের কাছ থেকে ২১ হাজার ৬০০ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্রটি।

দিনের আলো হিজড়া সংঘের সভাপতি মোহনা মঈন বলেন, আমাদের ৬১ জন সদস্য সমাজসেবা কার্যালয় থেকে প্রতি মাসে ৬০০ টাকা করে ভাতা পান। ২০১৭ সাল থেকে এই ভাতা দেয়া হচ্ছে। প্রতি তিন মাস অন্তর ১ হাজার ৮০০ টাকা ভাতা দেয়া হয়। এবার নগদ একাউন্টে ভাতার টাকা পাঠানোর পর এসএমএস না আসায় আমরা বুঝতে পারিনি। প্রতারক চক্র ফোন করে নগদে টাকা পাঠানোর কথা বলে ওটিপি জানতে চায়। তথ্য-প্রযুক্তি সম্পর্কে ধারণা কম থাকায় অনেক হিজড়া সদস্যই সেই ওটিপি দিয়ে দিয়েছে। ওটিপি বলার পর একাউন্টে থাকা টাকা উধাও হয়ে গেছে। এভাবে ১৩ জনের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। প্রতারণার বিষয়টি বুঝতে পেরে অন্য সদস্যদের দ্রুত সতর্ক না করলে আরও অনেকেই প্রতারিত হতেন। এ ঘটনায় আমরা থানায় জিডি করেছি।

রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম জানান, জিডি হওয়ার পর থেকে তারা বিষয়টি তদন্ত শুরু করেছে। সাইবার ক্রাইম ইউনিটের সহযোগিতায় তারা এটি তদন্ত করে দেখবেন বলেও জানান তিনি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ