নগরীতে বিএনপির দুগ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১০

আপডেট: জানুয়ারি ২৫, ২০১৭, ১২:২০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


ফাইল ছবি
নগরীর ষষ্টিতলা এলাকায় বিএনপির দু গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এক দোকানদারকে মারপিটের ঘটনাকে কেন্দ্র করে নগর বিএনপির যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মামুন অর রশিদ ও কাউন্সিলর মিলু গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে এ সংঘর্ষ শুরু হয়। এ ঘটনায় ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিলু গ্রুপের মমিন, তারেক ও রাজুসহ প্রায় ১০ জন আহত হয়। সংঘর্ষের সময় নিউমার্কেট ও ষষ্টিতলা এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এলাকায় পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে। এরপর বোয়ালিয়া থানা পুলিশ ষষ্টিতলা এলাকার শামসুল আলমের ছেলে আশিকুল আলম লিটুকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।
জানা যায়, গতকাল দুপুরে নিউমার্কেট এলাকার ইকবাল নামের এক প্রেস দোকানদারকে কাউন্সিলর গ্রুপের লিটু, জিতু ও রাজু মিলে মারধর করে। এরপর দোকানদার ইকবাল বোয়ালিয়া থানায় অভিযোগ দেয়। এই অভিযোগ দেয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে কাউন্সিলর গ্রুপের লোকজন মামুন গ্রুপের সংঘর্ষ শুরু হয়।
এবিষয়ে নগর বিএনপির যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মামুন অর রশিদ বলেন, কোন ঘটনা ছাড়াই হঠাৎ করে কাউন্সিলর গ্রুপের লোকজন হামলা ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করে। এরপর তাদের প্রতিহত করার চেষ্টা করতে গেলে সংঘর্ষ বেধে যায়।
এ বিষয়ে বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাদত হোসেন বলেন, ষষ্টিতলা এলাকায় বিএনপির দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এরপর ঘটনার সঙ্গে জড়িত ষষ্টিতলা এলাকার লিটু নামের একজনকে পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে আসে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আছে।