নগরীতে বিভাগীয় ফরেনসিক ল্যাবরেটরির সূচনা

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২০, ১২:৪৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


উদ্বোধন শেষে বিভাগীয় ফরেনসিক ল্যাবরেটরি পরিদর্শন করছেন আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী -সোনার দেশ

নগরীতে যাত্রা শুরু করলো বিভাগীয় ফরেনসিক ল্যাবরেটরির। গতকাল সোমবার সকালে রাজশাহী পুলিশ লাইন্সে ল্যাবটির উদ্বোধন করেন পুলিশের মহাপরিদর্শক ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। এর ফলে রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের ১৬ জেলার মামলার আলামত পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠাতে হবে না। এই ল্যাবেই সব ধরনের পরীক্ষা নিরীক্ষা করা সম্ভব হবে। ফলে এখন থেকে মামলার তদন্ত রিপোর্ট পেতে আর দীর্ঘসূত্রিতার মধ্যে পড়তে হবে না। এতে দ্রুত সময়ের মধ্যে আসামি শনাক্ত ও মামলা তদন্তে গতি আসবে।
সিআইডি সূত্র জানায়, ক্লুলেস বিভিন্ন চাঞ্চল্যকর মামলার রহস্য উদঘাটন ও বিভিন্ন আলামত, ডিএনএ ও সাইবার টেস্টের মতো গুরুত্বপূর্ণ আলামত পরীক্ষার জন্য সিআইডির ফরেনসিক ল্যাব বর্তমানে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছে। দেশের বিভিন্ন স্থানে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন অপরাধের ঘটনার রহস্য উদঘাটনে ঢাকার ফরেনসিক ল্যাবে যোগাযোগ করতে হয় সংশ্লিষ্টদের। এতে সময় বেশি প্রয়োজন হয়। পরীক্ষার রিপোর্ট দিতেও দেরি হয়। ফলে মামলার তদন্ত কাজ আটকে থাকে। এ জন্য বিভাগীয় পর্যায়ে ফরেনসিক ল্যাব বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়া হয়। এরই প্রেক্ষিতে রাজশাহী পুলিশ লাইন্সে ল্যাবটি প্রতিষ্ঠা করা হলো।
ফরেনসিক ল্যাবে রাসায়নিক, ব্যালিস্টিকস, হস্তলিপি, ফিঙ্গারপ্রিন্ট, অনু বিশ্লেষণ, ফুট প্রিন্ট ও জালনোট শনাক্ত করার ব্যবস্থা রয়েছে। এর মধ্যে রাসায়নিক পরীক্ষাগারে ভিসেরা, নারকোটিক ও অ্যাসিড টেস্টসহ আরও কয়েকটি আইটেম পরীক্ষা করা হবে।
ল্যাব উদ্বোধনের পর মহাপরিদর্শক বলেন, ফরেনসিক ল্যাব উদ্বোধনের ফলে রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের ১৬ জেলার যেকোনো অপরাধের আলামত সংগ্রহ করে পরীক্ষা নিরীক্ষার মাধ্যমে তার ফলাফল দ্রুত পাওয়া সম্ভব হবে। ফলে যেকোনো অপরাধের মামলার তদন্ত রিপোর্ট দ্রুততার সাথে দেয়া সম্ভব হবে। ফলে গতি আসবে মামলার তদন্তে। এর ফলে এ অঞ্চলের মানুষদের আর মামলার তদন্ত রিপোর্ট পেতে আর দীর্ঘসূত্রিতার মধ্যে পড়তে হবে না।
মহাপরিদর্শক বলেন, এখন থেকে এই ল্যাবে সাইবার ক্রাইম ও ডিএনএ টেস্ট ছাড়া সব ধরনের মামলার আলামত সংগ্রহ করে পরীক্ষা নিরীক্ষার মাধ্যমে তদন্ত রিপোর্ট দেয়া সম্ভব হবে। সততা ও নিরাপত্তার সাথে শতভাগ সঠিক তদন্ত রিপোর্ট দেয়া হবে। রাজশাহীতে স্থাপিত ফরেনসিক ল্যাবে আলামত পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হলেও তদন্ত রিপোর্ট প্রভাবিত করার কোনো সুযোগ থাকবে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
এর আগে আইজিপি আরএমপিতে মহান মুক্তিযুদ্ধে আত্মদানকারী শহিদ পুলিশ সদস্যদের গণকবর ও স্মৃতিস্তম্ভের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এরপর কেক কেটে ফরেসনসিক ল্যাবের উদ্বোধন শেষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ মুক্তিযুদ্ধে আত্মদানকারী সব শহিদ পুলিশ সদস্য, ৭১-এ শহিদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত এবং রাজশাহীবাসীর কল্যাণ কামনা করে মোনাজাত করা হয়। এরপর আরএমপি পুলিশ লাইন্স মাঠে রাজশাহী’র সব পুলিশ ইউনিটের সমন্বয়ে বিশেষ কল্যাণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে অফিসার ফোর্সদের বিভিন্ন আবেদন নিবেদন শোনেন এবং দ্রুত বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি প্রদান করে। এতে সভাপতিত্ব করেন আরএমপি’র পুলিশ কমিশনার হুমায়ুন কবির। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সিআইডি’র প্রধান চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন ও রাজশাহী রেঞ্জ ডিআইজি এ কে এম হাফিজ আক্তার।
বার্ষিক পুলিশ সমাবেশ ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা : মুজিববর্ষের অঙ্গীকার পুলিশ হবে জনতার এ স্লোাগানকে সামনে রেখে গতকাল দুপুরে আরএমপি পুলিশ লাইন্স মাঠে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ এর আয়োজনে বার্ষিক পুলিশ সমাবেশ ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, আরএমপি’র পুলিশ কমিশনার মো. হুমায়ুন কবির। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, সিআইডি’র প্রধান চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন, রাজশাহী রেঞ্জ ডিআইজি এ কে এম হাফিজ আক্তারসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও অতিথিবৃন্দ। বার্ষিক পুলিশ সমাবেশের প্রথমে মনোরম প্যারেড প্রদর্শন করেন আরএমপি’র চৌকোষ প্যারেড দল। এরপর বেলুন ফেস্টুন উড়িয়ে বার্ষিক পুলিশ সমাবেশ-২০২০ এর শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় বিভিন্ন ধরনের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। ক্রীড়া প্রতিযোগিতা শেষে প্রধান অতিথি আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী মহোদয় বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার প্রদান করেন।
রাজশাহী জেলার পুলিশ অফিসার্স মেসের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন : গতকাল বেলা ১০টায় রাজশাহী জেলা পুলিশের নির্মিতব্য পুলিশ অফিসার্স মেসের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন পুলিশের আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, সিআইডির অতিরিক্ত আইজিপি চৌধুরী আব্দুল্লাহ-আল-মামুন, রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি এ কে এম হাফিজ আক্তার, রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনার হুমায়ন কবির, রাজশাহী জেলার পুলিশ সুপার মো. শহিদুল্লাহসহ অন্যান্য কর্মকর্তা। ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন শেষে বিশেষ দোয়া করা হয়। বাংলাদেশ পুলিশ ও গণপূর্ত অধিদপ্তরের মাধ্যমে রাজশাহী জেলা পুলিশের এই অফিসার্স মেসের নির্মাণকার্য সম্পন্ন করা হবে।