নগরীতে মোটর সাইকেলে আগুন দিল যুবক

আপডেট: আগস্ট ৮, ২০২২, ১১:৪০ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক :


তিনবারে তিনটি মামলায় ৪০ হাজার টাকা খরচ করেছেন নিজের মোটর সাইকেল উদ্ধারে। সোমবার (৮ আগস্ট) দুপুর আড়াইটার দিকে আবারও গাড়ির প্রয়োজনীয় কাগজ ও যাত্রীদের হেলমেট না থাকায় গাড়িটি জব্দ করার কথা জানায় দায়িত্বরত ট্রাফিক সার্জেন্ট। এই রাগ-ক্ষোভে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে নিজের মোটর সাইকেলে আগুন দিয়ে পুড়িয়েছে আশিক আলী (৩০) নামের এক যুবক।
রাজশাহী নগরীর কোর্ট হড়গ্রাম অক্টয় মোড় এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। ওই যুবক নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানার কাঁঠালবাড়িয়া এলাকার আসাদ আলীর ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, এ সময় কোর্ট হড়গ্রাম অক্টয় মোড় এলাকায় রুটিন দায়িত্বে ছিলেন রাজশাহী নগর পুলিশের ট্রাফিক সার্জেন্ট আব্দুল কাইয়ুম। ২টার দিকে দুই আরোহীসহ আশিক আলী ওই এলাকা অতিক্রম করছিলেন। চেকপোস্টে পুলিশ সার্জেন্ট তাদের আটকে কাগজপত্র দেখতে চাইলে আপত্তি জানান আশিক। চাবি নিতে চাইলে বাধাও দেন। এসব নিয়ে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে নিজের মোটরসাইকেলে আগুন দেয় আশিক আলী।

আশিক আলী জানান, মামলা না দেয়ার জন্য তিনি বারবার রিকোয়েস্ট করেছেন। ৫ মিনিট সময় চেয়েছিলেন; কাগজ নিয়ে আসার জন্য। কিন্তু তারা কোনো কথা শোনে নি। কেস না দিয়ে জব্দ করতে চেয়েছিলেন। তাই ক্ষোভে আগুন দিয়েছেন।

ওই সময় কোর্ট রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় টহল দায়িত্বে ছিলেন নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানার উপ-পরিদর্শক মৌসুমী আক্তার। খবর পেয়ে তিনি সেখানে যান। মৌসুমী আক্তার জানান, তিনজন আরোহী ওই মোটর সাইকেলে ছিলো। কারও হেলমেট ছিল না। গাড়িরও কাগজপত্রও ছিল না।

ঘটনাস্থলটি নগরীর রাজপাড়া থানা পুলিশের আওতাধীন। আগুনে পুড়ে যাওয়া মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করে নিয়ে যায় রাজপাড়া থানা পুলিশ। এই ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী আশিক আলীকেও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নগর ট্রাফিক পুলিশের হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নগর পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) অনির্বান চাকমা জানান, ঘটনার পর তারা মোটরসাইকেল আরোহী আশিক আলীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন। তার গাড়ির কাগজ না থাকায় এর আগেও তার গাড়ির মামলা হয়েছে। তার উচিৎ ছিলো প্রয়োজনীয় কাগজ সঙ্গে রাখা। তিনি আইনের ব্যত্যয় ঘটিয়েছেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ