নগরীতে শিক্ষার্থীদের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে আরএমপি’র স্কুল ভিজিটিং প্রোগ্রাম শুরু

আপডেট: জুন ৬, ২০২৪, ৯:৫০ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ (আরএমপি) এর উদ্যোগে নগরীর ৫১৯ টি শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ‘স্কুল ভিজিটিং প্রোগ্রাম’ কর্মসূচি শুরু করা করেছে। বৃহস্পতিবার (৬ জুন) সকাল ১০ টায় প্রথম দিনে নগরীর সরকারি পিএন গার্লস উচ্চ বিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু কলেজ ও মসজিদ মিশন একাডেমি সহ মোট ১৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্কুল ভিজিটিং প্রোগ্রামের মাধ্যমে মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে ৫১৯ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ প্রোগ্রাম চলবে।

এসময় প্রোগ্রামের সমন্বয়কারী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আরএমপি’র অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম অ্যান্ড অপারেশনস্) সাবিনা ইয়াসমিন। এছাড়াও স্কুল ভিজিটিং প্রোগ্রাম কর্মসূচিতে বিভিন্ন থানার অফিসার ইনচার্জগণ, বিট অফিসার, শিক্ষকমণ্ডলী ও ছাত্রী-ছাত্রীরা উপস্থিত ছিলেন।

এবিষয়ে অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম অ্যান্ড অপারেশনস্) সাবিনা ইয়াসমিন বলেন, স্কুল ভিজিটিং প্রোগ্রাম রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের একটি মহতী উদ্যোগ। নিরাপদ নগরী গড়তে সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার বিপ্লব বিজয় তালুকদার এর নির্দেশনায় এ কর্মসূচি শুরু করা হয়। আরএমপি’র ১২টি থানার আওতাধীন ৫১৯ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্কুল ভিজিটিং প্রোগ্রাম পর্যায়ক্রম চলবে।

এ মতবিনিময় সভায় আরএমপি’র ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ মাদক, ইভটিজিং, সাইবার ইস্যু, ট্রাফিক রুলস, এবং সামাজিক অপরাধ (যেমন বাল্যবিবাহ , যৌতুক, কিশোর গ্যাং ও মানবপাচার) প্রতিরোধে করণীয় বিষয়ে আলোচনা করেন। স্বত:স্ফূর্ত এ মুক্ত আলোচনা সভায় শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা আরএমপি’র কর্মকর্তাদের কাছে বিভিন্ন সমস্যার কথা উপস্থাপন করেন।

তিনি বলেন, স্কুল ভিজিটিং প্রোগ্রামের মতবিনিময় সভায় আরএমপি’র ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ মাদকের ভয়াবহতা তুলে ধরেন। মাদক থেকে দূরে থাকতে উপস্থিত ছাত্র-ছাত্রীদের অনুরোধ করেন। এছাড়াও সতর্ক থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারে পরামর্শ প্রদান করেন। কেউ সাইবার অপরাধের শিকার হলে কীভাবে প্রতিকার পাওয়া যাবে সে বিষয়ে আলোচনা করেন।

তিনি আরো বলেন, স্কুল ভিজিটিং প্রোগ্রামে ছাত্র-ছাত্রীদের ট্রাফিক আইন জেনে ও মেনে নিরাপদে পথ চলা, নিয়ম মেনে রাস্তা পারাপারসহ প্রয়োজনে ট্রাফিক পুলিশের সহযোগিতা গ্রহণ করতে বলা হয়েছে। এছাড়াও রাস্তায় বিপদে পড়লে বা কেউ ইভটিজিং এর শিকার হলে আরএমপি’র সহযোগিতা নেওয়া বা জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ এ কল করতে বলাসহ বাল্যবিবাহ, যৌতুক, কিশোর গ্যাং ও মানবপাচার সংক্রান্ত সচেতনতামূলক পরামর্শ দেন তিনি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Exit mobile version