নগরীতে সপ্তার ব্যবধানে বেড়েছে কাঁচা মরিচ ও মাছের দাম

আপডেট: আগস্ট ৬, ২০২২, ১২:৫৩ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


সপ্তা ব্যবধানে রাজশাহীর বাজারে কাঁচা মরিচ দ্বিগুন দামে বিক্রি হয়েছে। ১০০ টাকা কেজি থাকা কাঁচা মরিচ বিক্রি হয়েছে ২৪০ টাকা কেজি দরে। এছাড়া বেড়েছে মাছ ও কয়েকটি সবজির দাম। অপরিবর্তিত রয়েছে চাল, চিনি ও ডালের দাম। শুক্রবার (৫ আগস্ট) নগরীর শালবাগান, সাহেববাজার মাস্টারপাড়া কাঁচাবাজার, তেরখাদিয়া সবজি বাজার ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

বাজারে প্রতিকেজি বেগুন বিক্রি হয়েছে ৪৫ থেকে ৫০ টাকা দরে, আলু ৩০ টাকা, করলা ১০ টাকা বেড়ে ৩৫ থেকে ৪০ টাকা, পেঁপে ২৫ থেকে ৩০ টাকা, লাউ প্রতি পিচ ২০ থেকে ২৫ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা দরে, ঢেঁড়স ২০ থেকে ২৫ টাকা, কচুরলতি ৩৫ থেকে ৪০ টাকা, বরবটি ৩৫ থেকে ৪০ টাকা, পটল প্রতিকেজি ২০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ২৫ টাকা, লাউ প্রতি পিস ৩০ টাকা, চালকুমড়া প্রতিপিস ২৫ থেকে ৩০ টাকা থেকে বেড়ে ৫০ টাকা পিচ বিক্রি হয়েছে। এছাড়া ঝিঙ্গা ৪০ টাকা, পুঁইশাক শাক ১০ থেকে ১৫ টাকা আঁটি, লালশাক ও সবুজ শাক প্রতিকেজি ২৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

কাঁচাকলা প্রতিহালি ২০ টাকা, লেবু প্রতিহালি ৬ থেকে ৮ টাকা, দেশি শসা প্রতিকেজি ১০০ টাকা ও হাইব্রিড শসা ৪০ থেকে ৫০ টাকা, গাজর প্রতিকেজি ১৫০ থেকে ১৬০ টাকা।

পেঁয়াজ প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকা, দেশি রসূন প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকা ও ইন্ডিয়ান রসুন ৮০ টাকা কেজি দরে। আদা প্রতিকেজি বিক্রি হয়েছে ৮০ থেকে ১২০ টাকা ও শুকনা মরিচ বিক্রি হয়েছে ৩৩০ থেকে ৩৫০ টাকা কেজি দরে ।

সাহেব বাজারের সবজি বিক্রেতা ইউনুস বলেন, কয়েক দিন ধরে মরিচ, বেগুন, লাউ, চালকুমড়া, করলাসহ অন্যান্য সবজি বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে। মরিচের দাম নিয়ে ক্রেতারা দ্বিধায় পড়েছে এক দোকান থেকে অন্য দোকানে দাম শুনছে।

বাজারে বেড়েছে মাছের দাম। সাহেব বাজারের মাছ ব্যবসায়ী মোমিন জানান, সপ্তা ব্যবধানে পুকুরের মাছে কেজিপ্রতি বেড়েছে ৩০ থেকে ৪০ টাকা। আর নদীর মাছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা।

এদিন কাতলা মাছ বিক্রি হয়েছে ২২০ থেকে ৩২০ টাকা, রুই মাছ ২২০ থেকে ২৮০ টাকা, সিলভার মাছ বিক্রি হয়েছে ১৫০ থেকে ২০০ টাকা, মিরকা মাছ বিক্রি হয়েছে ১৬০ থেকে ২২০ টাকা। এছাড়া নদীর পাবদা মাছ বিক্রি হয়েছে ৪০০ থেকে ৬০০ টাকা দরে।

মাছ ক্রেতা আজমল জানান, যত দিন যায় ততো দাম বারে। কোন জিনিসের দাম কোমলো না। কমার কথা শুনে বাজারে এসে দেখি আগের দাম বা বারতি দাম। মাছের দামও প্রতি সপ্তায় বাড়ে। বিক্রেতারা বলেন, নদী, পুুকুরে পানি নেয়। চাষীরা মাছ চাষ করতে পারছে না। তাই দাম বেশি।

এছাড়া মাংসের বাজারে গরুর মাংস প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ৬৫০ টাকা দরে। খাসির মাংস ৮৫০ থেকে ৯০০ টাকা, ব্রয়লার প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ১৪০ টাকা, সোনালি ২৩০ টাকা, লেয়ার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ২৫০ টাকা, হাঁস প্রতিকেজি ৩১০ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে। সাদা ডিম প্রতিহালি ৩৮ টাকা ও লাল ডিম ৪০ টাকা হালি দরে বিক্রি হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ