নগরীতে সরস্বতী পূজা উদযাপিত

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১, ২০২০, ১২:৫৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


পূজা অর্চনায় বিদ্যাদেবীর কাছে প্রার্থনা করছেন এক কৃপাপ্রার্থী-সোনার দেশ

নগরীতে ভাব-গম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে জাঁকজমকভাবে উদযাপিত হয়েছে সরস্বতী পূজা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, ক্লাব, মণ্ডপ ও পারিবারিকভাবে শ্রী পঞ্চমীতে বাণী অর্চনায় অর্ঘ্যদান করেছেন বিদ্যার্থীরা। বিদ্যাদেবীকে তুষ্ট করাই ছিলো তাদের লক্ষ্য।
তবে কোনো কোনো স্থানে বুধবার থেকেই সরস্বতী পূজা শুরু হয়েছে। আর তিথিগত বাধ্যবাধকতার কারণে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার মধ্যেই অনেকেই পূজা শেষ করেছেন। এছাড়া বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ বাড়িতে বাড়িতে অনুষ্ঠিত হয়েছে বিদ্যার দেবী সরস্বতী পূজা। হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম এই ধর্মীয় উৎসবে পঞ্চমী তিথিতে বিদ্যা ও জ্ঞানের অধিষ্ঠাত্রী দেবী সরস্বতীর চরণে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন অগণিত ভক্ত। অজ্ঞতার অন্ধকার দূর করতে কল্যাণময়ী দেবীর চরণে প্রণতি জানান তারা। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মতে দেবী সরস্বতী সত্য, ন্যায় ও জ্ঞানালোকের প্রতীক।
বিদ্যা, বাণী ও সুরের অধিষ্ঠাত্রী। হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা এ মন্ত্র উচ্চারণ করে বিদ্যা ও জ্ঞান অর্জনের জন্য দেবী সরস্বতীর অর্চনা করেন। রাজশাহী কলেজের হেমন্ত কুমারী ছাত্রাবাস, ভোলানাথ হিন্দু একাডেমি, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী মেডিকেল কলেজে নানা আয়োজনের মধ্যে দিয়ে এ পূজা অনুষ্ঠিত হয়।
রাজশাহী হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের অনিলকুমার সরকার জানান, এবার রাজশাহী মহানগরীতে তিন শতাধিক মণ্ডপে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় : যথাযোগ্য ভাবগাম্ভীর্য ও ধর্মীয়বোধে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) পালিত হয়েছে সনাতনী ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম উৎসব সরস্বতী পূজা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মন্দিরে পূজা অর্চনা ও পুষ্পাঞ্জলি অর্পণের মধ্য দিয়ে সরস্বতী পূজার কর্মযজ্ঞ শুরু হয়।
পরে কেন্দ্রীয় মন্দির পরিচালনা পরিষদ ও শ্রী শ্রী সরস্বতী পূজা উদ্যাপন কমিটি মন্দির প্রাঙ্গণে আলোচনা সভার আয়োজন করে।
পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক বিশ্বনাথ শিকদারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা ও চৌধুরী মো. জাকারিয়া। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর লুৎফর রহমান, জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রভাষ কুমার কর্মকার, পূজা উদ্যাপন কমিটির আহবায়ক ড. অনুপম হীরা মন্ডল, কমিটির কর্মকর্তাসহ সদস্যগণ ও বিভিন্ন হল প্রাধ্যক্ষসহ শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এম আব্দুস সোবহান সরস্বতী পূজার গুরুত্ব ও তাৎপর্য সম্পর্কে আলোচনা করেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন বিদ্যাদেবী সরস্বতীর কল্যাণে সমাজে শিক্ষা, সাম্য ও অসাম্প্রদায়িক চেতনার আরো বিকাশ ঘটবে এবং সনাতন ধর্মাবলম্বী শিক্ষার্থীরা মানুষে মানুষের সম্পৃতি ও সৌহার্দ্যরে বন্ধনকে অটুট রাখতে কাজ করে যাবে। পরে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য কেন্দ্রীয় মন্দিরের নব-নির্মিত ভবনের উদ্বোধন করেন।
কেন্দ্রীয় মন্দির ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকটি হল, বিভাগ ও স্কুলে বাণী অর্চনা অনুষ্ঠিত হয়।
সরকারী পিএন বালিকা বিদ্যালয়: রাজশাহী সরকারী পিএন বালিকা বিদ্যালয়ে সরস্বতী পুজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পুজা উপলক্ষে শিক্ষাথী অভিবকরা সকালে স্কুল প্রাঙ্গণে অঞ্জলি দেয়। আগত দর্শনার্থীদের প্রসাদ বিতরণ করা হয়। পুজা উপলক্ষে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি ভালো ছিলো।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ