নগরীর ৮২ টি কেন্দ্রে ৭ আগস্ট থেকে শুরু হচ্ছে গণটিকা

আপডেট: আগস্ট ১, ২০২১, ৯:২৮ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহীর নয়টি উপজেলার প্রত্যেকটি ইউনিয়ন পরিষদ ও রাজশাহী সিটি করপোরেশন (রাসিক) এর ৮২ টি কেন্দ্রে একযোগে ৭ আগস্ট থেকে শুরু হচ্ছে গণটিকা কার্যক্রম। প্রতিদিন সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৩ টা পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলমান থাকবেন। যেখানে ১৮ বছরের উর্ধ্বে সকল বয়সী মানুষ টিকা নিতে পারবে। তবে ৭ আগস্ট থেকে ১২ আগস্ট পর্যন্ত চলা এ গণটিকা কার্যক্রমে শুধুমাত্র প্রথম ডোজের টিকা প্রদান করা হবে।
রাজশাহী সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এফএএম আঞ্জুমান আরা বেগম জানান, নগরবাসীর সুবিধার্থে বর্তমানে একসাথে বেশি সংখ্যক মানুষকে টিকা প্রদানের লক্ষ্যে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কেন্দ্রটি পরিবর্তন করে রাজশাহী সরকারী টিচার্স ট্রেনিং কলেজে স্থানান্তর করা হয়েছে। যেখানে ১৬টি বুথে করোনার টিকা প্রদান করা হচ্ছে। এরকম বক্ষব্যাথি হাসপাতাল, পুলিশ লাইন্স, আরবান ক্লিনিকসহ ২২ টি স্থায়ী কেন্দ্রে গণটিকা কার্যক্রম শুরু হবে। সিটি করপোরেশন এলাকার ৩০ টি ওয়ার্ডেও দুইটি করে বুথ স্থাপন করা হবে। এসব টিকা কেন্দ্রে তিন জন স্বেচ্ছাসেবী ও দুইজন টিকা প্রদানকারী থাকবেন। প্রতিদিন প্রতিটি বুথে ৩০০ থেকে ৪০০ জনকে টিকা প্রদান করা হবে। এই গণটিকা ক্যাম্পেইনে ১৮ বছরের উর্ধ্বে যে কেউ শুধুমাত্র প্রথম ডোজের টিকা নিতে পারবে।
রাজশাহী সিভিল সার্জন ডা. কাইয়্যুম তালুকদার জানান, রাজশাহী জেলার ৯ টি উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে একটি কেন্দ্র থাকবে। যেখানে তিনজন স্বেচ্ছাসেবী ও একজন টিকা প্রদানকারী থাকবেন। প্রতিটি কেন্দ্রে প্রতিদিন ৬০০ জনকে টিকা প্রদান করা হবে। স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করে টিকা কার্যক্রম পরিচালনায় কেন্দ্রগুলোতে পুলিশ ও আনসার সদস্যরাও দায়িত্ব পালন করবেন।