নগরে কাঁকড়া বিক্রি করেন তারা

আপডেট: অক্টোবর ২২, ২০২১, ১০:২৯ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক:


কাঁকড়া, কেউ খায়। আবার কেউ খায় না। তবে যারা কাঁকড়া খায়, তাদের চাহিদা মতো জোগান দেওয়া সম্ভব হয় না। কারণ রাজশাহীতে এখনও বাণিজ্যিক ভাবে চাষ হয় না কাঁকড়ার। তবে খাল-বিল থেকে সংগ্রহ করা কাঁকড়া বিক্রি করেন তারা কয়েকজন।
তাদের মধ্যে মোহনপুরের একজন রফিক ইসলাম। তিনি পেশায় মাছ বিক্রেতা। তবে যেদিন কাঁকড়া পেয়ে যান সেদিন আর মাছ কেন না। সেই কাঁকড়া বিক্রির জন্য চলে আসেন রাজশাহী নগরীর পাড়া-মহল্লায়।

রফিক বলছেন, কাঁকড়া বিক্রিতে তুলনায় মূলক মাছের চেয়ে লাভ বেশি। কারণ এখনও সেইভাবে মানুষ কাঁকড়ার ব্যবসা করে না। অনেকেই আবার কাঁকড়া খায় না।

রফিক জানান, শুধু তিনিই নয়, বাগমারা ও তানোর থেকে আরো দুজন কাঁকড়া বিক্রি করতে আসে নগরীতে। তারা নগরীর পাড়া-মহল্লায় বিক্রি করেন কাঁকড়া।

তিনি জানান, আমরা মাছ ধরা জেলেদের সাথে যোগাযোগ করি। তাদের মাছ ধরা জালে কাঁকড়া ধরা পরে। সেই কাঁকড়াগুলো ফেলে না দিয়ে সংরক্ষণ করতে বলি। এর পরে আমরা সেই কাঁকড়াগুলো তাদের থেকে কিনে নেয়। এর পরে ৬০ থেকে শুরু করে ১০০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি করি কাঁকড়াগুলো।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ