নগর আ’লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২১, ১০:০১ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


নগর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা ৭টায় কুমারপাড়া দলীয় কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন, নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সিটি মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। সভায় সঞ্চালনা করেন- সাধারণ সম্পাদক মো. ডাবলু সরকার। সভায় নরগ আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
সভাপতির বক্তব্যে এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, মার্চ মাস বাংলাদেশের অভ্যূদয়ের মাস। এই মাসেই ১৭ তারিখে বাংলাদেশের একটি নিভৃত গ্রাম টুঙ্গিপাড়ায় জন্মেছিলেন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। সেই গ্রামের জন্ম নেয়া খোকা থেকে শেখ মুজিবুর রহমান, শেখ মুজিবুর রহমান থেকে বঙ্গবন্ধু, বঙ্গবন্ধু থেকে জাতির পিতা হয়েছিলেন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।
তিনি বলেন, এই মার্চ মাসেই ৭ তারিখে বঙ্গবন্ধু অগ্নিঝরা ভাষণ দিয়ে বাঙ্গালী জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন পাকিস্তানী শাসকদের জুলুম, অত্যাচার ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে স্বাধীন বাংলাদেশের অভিপ্রায়ে। এই মার্চ মাসেই পাকিস্তানীরা আমাদের প্রিয় মাতৃভূমিকে পোড়া মাটির নীতি অবলম্বন করে অতিরিক্ত সৈন্য সমাবেশ ও অস্ত্র গোলা-বারুদ মজুদ করে বাঙ্গালী নিধনের পরিকল্পনা গ্রহণ করে।
তিনি আরও বলেন, এই মার্চ মাসের ২৫ তারিখে বঙ্গবন্ধু গ্রেফতারের পূর্বে ইপিআর এর ওয়ারলেস যোগে বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা দেন ও শত্রুদের মোকাবিলা করার জন্য প্রস্তুতি গ্রহনের নির্দেশ দেন।
সাধারণ সম্পাদক মোঃ ডাবলু সরকার নির্বাহী কমিটির গৃহীত সকল কর্মসূচি সফল ও সার্থক করার লক্ষ্যে উপস্থিত নেতৃবৃন্দের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করে বলেন, মার্চ মাস আমাদের স্বাধীনতার মাস, আমাদের আত্মপরিচয়ের মাস। মার্চ মাস বাংলাদেশের জাতীয় জীবনে এক ঐতিহাসিক মাস। এই মাসেই বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশ নামক একটি রাষ্ট্রের অস্তিত্ব তুলে ধরেন স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক ও বাংলাদেশের স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। এই মাসেই বাঙ্গালী তার সশস্ত্র যুদ্ধের মধ্যে দিয়ে ত্রিশ লাখ শহীদ ও দুই লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে লাল-সবুজের পতাকা, জাতীয় সঙ্গীত, বিশ্বের মানচিত্রে আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশের অভ্যূদয় ঘটে।
সভার সিদ্ধান্তসমূহ:
৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণ দিবস উপলক্ষ্যে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন। ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে মাইকযোগে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ প্রচার। সকাল ১০টায় স্বাধীনতা চত্বরে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ। সকাল সাড়ে ১০ টায় দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা। ১৭ মার্চ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন। ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে মাইকযোগে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ প্রচার। সকাল ১০টায় স্বাধীনতা চত্বরে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ। কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর সাথে সমন্বয়করণ। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন। সুবিধাজনক সময়ে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা। ২৫মার্চ গণহত্যা দিবস উপলক্ষ্যে সন্ধ্যা ৭টায় দলীয় কার্যালয় থেকে আলোর মিছিল নিয়ে ভূবন মোহন পার্কে অবস্থান ও মোমবাতি প্রজ্বলন। এরপর এক মিনিট নিরবতা পালন করা হবে। রাত সাড়ে ৭ টায় ভূবন মোহন পার্কে আতাউর রহমানের রচিত ঐতিহাসিক মঞ্চ নাটক “রক্তের রং লাল” মঞ্চস্থ করা হবে। রাত ৯টায় এক মিনিট স্ব স্ব অবস্থান থেকে ব্লাক আউট। ২৬মার্চ স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষ্যে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন। ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে মাইকযোগে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ প্রচার। বিকেল ৪.৩০টায় দলীয় কার্যালয় থেকে বর্নাঢ্য শোভাযাত্রা বের হবে। সকল ধর্মীয় উপাসনালয়ে শহীদদের আত্মার শান্তি কামনা করে প্রার্থনা করা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ