নজরুলের নাম শিরোনাম কবিতার পটভূমি’ গ্রন্থের পর্যালোচনা

আপডেট: মে ২৭, ২০২১, ১২:১৬ পূর্বাহ্ণ

আনারুল হক আনা:


২০২০ সালের আগস্টে ‘নজরুলের নাম শিরোনাম কবিতার পটভূমি’ নামের একটি গ্রন্থ প্রকাশ হয় রাজশাহী থেকে। রাজশাহীর সাহিত্য ও গবেষণা চর্চার ক্ষেত্রে এটাও ইতিবাচক সংযোজন। গ্রন্থটির লেখক ড. মোহা. আজমল খান। এর পূর্বে তাঁর কয়েকটি প্রবন্ধ প্রকাশ ছাড়া বড় কোনো অক্ষরকর্ম সম্পাদন করার তথ্য পাওয়া যায়নি। এ গ্রন্থ দিয়েই তাঁর শিল্পকর্ম প্রচ্ছদে বাঁধাইয়ের সূচনা। গ্রন্থটির প্রচ্ছদে সন্নিবেশিত লেখক পরিচিতি থেকে তথ্য আসে তাঁর অন্বেষণের মৌল বিষয়ও নজরুলের জীবন ও কর্ম সাধনা। তিনি ভারতের বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০১২ সালে পিএইচডি অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেন। গবেষণা অভিসন্দর্ভের শিরোনাম ছিল ‘নজরুলের সৃষ্টিতে প্রকৃতি ও সংস্কৃতির স্বরূপ’।
লেখক গ্রন্থটিতে মৌলিক তথ্য উপস্থাপন করতে পেরেছেন বলে মনে হয় না। তবে তাঁর শিল্পকর্মকে ব্যতিক্রম ধারায় উপস্থাপনের চেষ্টা চালিয়েছেন। নজরুলের কর্মব্যাপ্তি থেকে নাম কবিতাসমূহ (ব্যক্তির নামে শিরোনাম কবিতা) নিবিড়ভাবে অনুসন্ধান ও উদ্ঘাটনের পর বিভিন্ন প্রশ্ন দিয়ে উত্তর খুঁজেছেন। যা গবেষণার প্রধান বৈশিষ্ট্য। এ সব উত্তরের সমারোহই একেকটি কবিতার পটভূমি। সংগৃহীত কবিতার পরিসংখ্যান ২৪টি। তারমধ্যে বিভিন্ন প্রসঙ্গে ‘কিশোর রবি’, ‘রবির জন্মতিথি’, ‘সালাম অস্ত – রবি’ ও ‘রবি – হারা’ শিরোনামে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে নিয়ে লিখা ৪টি। সত্যেন্দ্রনাথ দত্তের উদ্দেশ্যে লিখেছেন ‘সত্যেন্দ্র-প্রয়াণ’ ও ‘সত্য কবি’ নামে ২টি কবিতা। অবশিষ্ট ১৮টি কবিতা ১৮ জন কৃতীকেন্দ্রিক। তাঁরা প্রত্যেকেই নিজ নিজ কর্মযুদ্ধে এক একজন বীর ও বীরনারী। যাঁরা প্রভুত্ববাদহীন রাষ্ট্র উন্মেষ ও অনাচারমুক্ত সমাজ বিকাশের সাধনায় সক্রিয় ছিলেন। তাঁদের কর্ম সমাজ সংস্কার ও মানব হিতৈষণায় দীপ্তমান। যা সমকাল থেকে অনাগত সময়ের প্রজন্মকে মানবসেবায় অনুপ্রেরণা দিয়ে আসছে। ঘনিষ্ঠতার কারণে চরিত্রগুলোর অনেককে নজরুল নিকট থেকে দেখা ও জানার সুযোগ পেয়েছেন। আবার দূর অতীতের চরিত্রগুলোর সঙ্গে ইতিহাস সূত্রে মানসিক সংযোগ স্থাপন করেছিলেন। ব্রিটিশ উপনিবেশিক কালে নজরুল প্রভুমুক্ত রাষ্ট্র ও নির্মল আলোময় সমাজের প্রত্যাশায় যে কলম যুদ্ধে লিপ্ত ছিলেন, তাঁর কবিতার চরিত্রগুলোও ছিলেন তাই।
ড. মোহা. আজমল খান প্রেক্ষাপট বিশ্লেষণে গিয়ে নাম কবিতার মানুষকে ইতিবাচক বীরত্বের ভাবধারায় উপস্থাপন করেছেন। এখানে লেখকের কৌশলের জ্ঞান-বুদ্ধির প্রয়োগও দেখা যায়। বর্ণনায় এসেছে তাঁদের পরিচয় ও কৃতিত্ব। এ মানবতাবাদী বিশ্লেষণ মানুষকে অন্যের জন্য বাঁচার কাজে উৎসাহিত করে। ফলে গ্রন্থটি সব বয়সের পাঠকের কাছেই সুখপাঠ্য। বিশেষ করে শিশুদের জন্য উপযোগী।
গ্রন্থটির পৃষ্ঠার সংখ্যা ১১০ ও মূল্য ১৫০ টাকা।
লেখক : শিক্ষা শ্রমিক, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন

haquercc@gmail.com