নতুন আতঙ্কের নাম মাঙ্কিপক্স! ১২টি দেশে ছড়িয়েছে সংক্রমণ, সতর্ক করল WHO

আপডেট: মে ২২, ২০২২, ২:০৬ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


করোনার আতঙ্ক একটু কমতেই মাঙ্কিপক্স সংক্রমণ ইউরোপজুড়ে। আগামী কয়েক মাসে ভাইরাসঘটিত সংক্রমণ আরও বেশি ছড়াবে বলে সতর্ক করলেন ইউরোপে WHO শীর্ষ কর্তা হানস ক্লুগ। ইতিমধ্যেই ইউরোপের ন’টি দেশে মাঙ্কিপক্স আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে।

এই দেশগুলি হল, বেলজিয়াম, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, ব্রিটেন, নেদারল্যান্ড, পর্তুগাল, স্পেন, সুইডেন। এছাড়া আমেরিকা, কানাডা, অস্ট্রেলিয়াতেও কয়েকজন আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে।

ইতিমধ্যেই সতর্ক হয়েছে ভারত। বিদেশ থেকে ভারতে ঢোকার সব ক’টি পথেই কড়া স্বাস্থ্যপরীক্ষার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, স্থলপথ ও জলপথে আসা ব্যক্তিদেরও স্বাস্থ্যপরীক্ষা করা হবে। সূত্রের খবর, এখনও পর্যন্ত ইউরোপে অন্তত ১০০ জন মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত। এঁদের বেশিরভাগই সমকামী পুরুষ বা উভকামী।

বিশেষজ্ঞদের দাবি, যৌন সঙ্গমের সময় এই ইনফেকশন সবচেয়ে দ্রæত ছড়াচ্ছে। অন্যদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কর্তার কথায়, “এখন গ্রীষ্মকাল হওয়ায় বিভিন্ন পার্টি, উৎসবে প্রচুর জনসমাগম হবে। সেখান থেকে সংক্রমণ খুব দ্রæত ছড়াবে।”

তবে মাঙ্কিপক্স সংক্রামক হলেও প্রাণঘাতী নয়। পক্সের টিকা নেওয়া থাকলে এই রোগ ভয়ানক রূপ ধারণ করতে পারে না বলেই জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।
সংক্রমিত হলে কী কী ল²ণ দেখা দিতে পারে?
* দেহে ভাইরাসের প্রবেশের তিনদিনের মাথায় প্রবল জ্বর আসে।
* জ্বর আসতে পারে কাঁপুনি দিয়ে।
* শুরু হয় সারা শরীরজুড়ে অসম্ভব ব্যথা।
* পেশিতে খিঁচুনি হতে পারে।
* চিকেনপক্সের মতো মুখ এবং শরীরজুড়ে বড় বড় ফোস্কার মতো ব়্যাশ বের হবে।
* র‌্যাশের জায়গায় চুলকানি, জ্বালা হতে পারে।
* ত্বক শুকিয়ে, খসখসে হয়ে যাবে।
* দুর্বল হয়ে যাবে শরীর।
দু-চারসপ্তাহ ভোগাবে এই অসুখ।

এতদিন চিকিৎসকদের ধারণা ছিল, দূর থেকেও ‘ড্রপলেট’-এর মাধ্যমে ছড়ায় এই রোগ। কিন্তু নতুন আক্রান্তদের পরীক্ষা করে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, আক্রান্ত ব্যক্তির মুখের দু-এক ইঞ্চির মধ্যে না এলে সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা কম। এ

ই ভাইরাস নতুন নয়। ১৯৫৮ সালে প্রথম বাঁদরদের মধ্যেই এই পক্স দেখা যায়।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ