নতুন জীবনে চিনের দ্রুততম ট্রেন

আপডেট: আগস্ট ২৪, ২০১৭, ১২:৪০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুততম বুলেট ট্রেন পুনরায় উন্মোচন করেছে চিন। এর আগে একবার এই ট্রেনটি উন্মোচন করে দেশটি। সে সময় বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুত গতির বুলেট ট্রেন ছিল এটি। ২০১১ সালে ট্রেনটির সর্বোচ্চ গতি ছিল ঘন্টায় ৩০০ কিলোমিটার। পরবর্তীতে ট্রেনটির দু’টি পৃথক দুর্ঘটনায় ৪০ জন নিহত হন।
সামনের সপ্তাহ থেকে এই মডেলের কয়েকটি ট্রেন ঘন্টায় সর্বোচ্চ ৩৫০ কিলোমিটার বেগে চলতে পারবে। ফলে সর্বোচ্চ গতিতে বেইজিং থেকে শাংহাই যেতে এক ঘন্টা সময় কম লাগবে, বলা হয়েছে বিবিসি’র প্রতিবেদনে। ২১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বাড়তি সর্বোচ্চ গতিতে চলার অনুমোদন পাবে ট্রেনগুলো। দ্রুতগতির এই ট্রেনের প্রত্যাবর্তন স্মরণীয় করে রাখতে এটির নাম দেওয়া হয়েছে ফিউশিং। চিনা ভাষায় এর অর্থ পুনরুজ্জীবন। দেশটির জাতীয় স্লোগান ও উন্নয়ন পরিকল্পনার সঙ্গে মিল রেখে এই নাম দেওয়া হয়েছে।
ট্রেনগুলোতে উন্নত নজরদারি ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। জরুরী অবস্থায় সয়ংক্রিয়ভাবে ট্রেনের গতি কমাবে ও থামাবে এই ব্যবস্থা। ট্রেনের ইঞ্জিন আরও দ্রুত গতিতে চলতে সহায়তা করতে নতুন ট্র্যাক তৈরিরও পরিকল্পনা রয়েছে দেশটির রেলওয়ে অপারেটর। নতুন ট্র্যাকে ৪০০ কিলোমিটার গতিতে চলতে পারবে ট্রেনগুলো। উচ্চগতির ১৯৯৬০ কিলোমিটার ট্র্যাক রয়েছে চীনের। ২০১১ সালে ট্রেনটির দুর্ঘটনায় রাষ্ট্রীয় তদন্ত শুরু হয়। বলা হয় রেলওয়ে মন্ত্রণালয়ের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের দুর্নীতির কারণে ওই দুর্ঘটনা ঘটেছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ