নতুন জোটকে স্বাগত জানাবে বিএনপি

আপডেট: আগস্ট ৪, ২০১৭, ১:২৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


দেশের জনগণ ও গণতন্ত্রের পক্ষে কোনো নতুন ‘রাজনৈতিক জোট’ গঠনের উদ্যোগকে স্বাগত জানাবে বিএনপি। বিকল্পধারা বাংলাদেশের সভাপতি এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর বাসায় বুধবার কয়েকটি দলের নেতাদের বৈঠকের বিষয়ে প্রতিক্রিয়ায় এমনটাই জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
বৃহস্পতিবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, “আমরা যেকোনো উদ্যোগ, যা দেশের পক্ষে, জনগণের পক্ষে, গণতন্ত্রের পক্ষে, তাকে আমরা সবসময় স্বাগত জানিয়েছি। “আমরা এখনো মনে করি যারাই এই অবৈধ অনৈতিক সরকার, নির্যাতনকারী সরকার, জুলুমবাজ সরকার- তাদের বিরুদ্ধে অবস্থান গ্রহণ করবে, আমরা অবশ্যই তাদেরকে স্বাগত জানাব।”
বুধবার রাতে বি চৌধুরীর বারিধারার বাড়িতে বৈঠক করেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জি এম কাদের। এই বৈঠকে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব, সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি সুব্রতচৌধুরী প্রমুখ ছিলেন। এর আগে গত ১৩ জুলাই রাতে রবের উত্তরার বাসায় বি চৌধুরী, কাদের সিদ্দিকী, মান্না, সুব্রত চৌধুরীরা এক হয়েছিলেন, যাতে বাগড়া দিয়েছিল পুলিশ। একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে আওয়ামী লীগ- বিএনপির বাইরে ‘বিকল্প রাজনৈতিক শক্তি’ গড়ে তোলার কথা বলছেন বি চৌধুরী, মান্না, রবরা। নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ফখরুলের সংবাদ সম্মেলনের আগে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব, সাংগঠনিক সম্পাদক, সম্পাদক ও সহ-সম্পাদকদের সভা হয়। দলের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা শেষে সভায় দলের সাংগঠনিক অবস্থা, সদস্য সংগ্রহ অভিযান, বন্যা পরিস্থিতি, দলের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী, খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের কারামুক্তি দিবস প্রভৃতি বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।
ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশের পরিপ্রেক্ষিতে সরকারের পদত্যাগ দাবি করেন মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, “বর্তমান এই সরকার অবৈধভাবে অনৈতিকভাবে ক্ষমতায় আছে। আপিল বিভাগের যে পূর্ণাঙ্গ রায় বেরিয়েছে, যেকোনো সভ্য দেশ হলে, গণতান্ত্রিক দেশ হলে সরকার পদত্যাগ করত। “গতকাল পত্রপত্রিকায় রায়ের যে অংশ পেয়েছি, আমরা দেখেছি যে রাষ্ট্রের একটি বড় প্রতিষ্ঠান, রাষ্ট্রের স্তম্ভ বিচার বিভাগ, তার রায়ে বলা হচ্ছে- দেশে গণতন্ত্র নেই, মানবাধিকার নেই, এদেশে পার্লামেন্ট নন ফাংশনাল হয়ে গেছে, এদেশে আইনের শাসন নেই এবং বিচার বিভাগকে তারা (সরকার) নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করছে। মোট কথায় সার্বিকভাবে দেশে এখন কোনো গণতন্ত্র নেই, মানুষের অধিকার নেই, ভোটের অধিকার পর্য়ন্ত নেই। এমনকি এই কথাও পর্যবেক্ষণে বলা হয়েছে যে, নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া এখানে সুষ্ঠু নির্বাচন হওয়া সম্ভব নয়।” সারাদেশে বন্যা কবলিত দুর্গতদের ত্রাণ বিতরণে সরকারের ব্যর্থতার কঠোর সমালোচনা করেন বিএনপি মহাসচিব। সারাদেশে নারী নির্যাতন বৃদ্ধি, বিশেষ করে বগুড়ায় দুই নারীর ওপর নির্যাতনের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান তিনি।-বিডিনিউজ