নলডাঙ্গা ও চারঘাটে চোর সন্দেহে ছয় ব্যক্তিকে পুলিশে দিলো জনতা

আপডেট: জানুয়ারি ১২, ২০১৭, ১২:০৬ পূর্বাহ্ণ

নাটোর অফিস ও চারঘাট প্রতিনিধি



নাটোরের নলডাঙ্গা ও রাজশাহীর চারঘাট উপজেলায় ছয়জন চোরকে জনতা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে।
চারঘাট উপজেলার শলূয়া ইউনিয়নের মাড়িয়া গ্রামে ভ্যান চুরি করতে গিয়ে জনতার হাতে চোরকে গণধোলাই দিয়ে মডেল থানায় পুলিশের কাছে তিনজনকে সোপর্দ করা হয়েছে।
জানা গেছে, গত মঙ্গলবার রাত ৪টায় উপজেলার মাড়িয়া গ্রামে সংঘবদ্ধভাবে চোর এলাকার মনির হোসেনের বাড়িতে অটো চালিত ভ্যান আঙিনা থেকে চুরি করে নিয়ে যাওয়ার সময় বাড়ির মালিক মনির টের পেলে চোর চোর বলে চিৎকার দিলে অটো চালিত ভ্যান রেখে পালিয়ে যাওয়ার সময় এলাকার জনতার হাতে নওগাঁ মান্দা থানার বাদলকান্দি গ্রামের তানজেব আলীর ছেলে বাবুল (৩২) কে গণধোলাই ও শরীর এবং দুই পায়ের রগ কেটে ফেলে রাখলে গ্রাম পুলিশ সুজন ও অটো চালিত ভ্যান মালিক আহত অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্স ভর্তি করে। পরে আহত বাবুল আশঙ্কাজনক অবস্থায় রামেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, খবর পেয়ে এসআই মজিবুর ঘটনাস্থলে গিয়ে তার সহযোগী আরো দুইজন জনতা ধরে রেখে পুলিশের কাছে সোর্পদ করেন। তারা হলেন ঝিকরা গ্রামের মনছুর আলীর ছেলে জনি (২২) ও সারদা থানাপাড়া আলমগীর হোসেনের ছেলে ফারুক (২১)।
এব্যাপারে মডেল থানার ওসি জানান, মাড়িয়া গ্রামে চুরি করতে গিয়ে তিন চোরকে জনতা গণধোলাই করে আহত আবস্থায় পুলিশ নিকট সোপর্দ করে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।
এদিকে নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার বাঁশভাগ মধ্যপাড়া গ্রামে গরু চোর সন্দেহে তিন যুবককে আটকের পর পুলিশে সোর্পদ করেছে এলাকাবাসী। গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত পৌনে ১২ টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। আটককৃতরা হলো উপজেলার ধোবাপুকুর গ্রামের মনতাজ উদ্দিনের ছেলে জিয়াউর রহমান (৩৫), আব্দুল খালেকের ছেলে মাসুম (৩৮) ও বাবর আলীর ছেলে রবিউল ইসলাম (৩৪)।
নলডাঙ্গা থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আবদুুল হাফিজ জানান, আটককৃত তিন যুবক রাত আনুমানিক ১১টার দিকে বাঁশ ভাগে মধ্যপাড়া গ্রামে সন্দেহজনক ঘোরাফেরা করছিলেন। এসময় স্থানীয় লোকজনের কাছে তাদের গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হওয়ায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদের সাথে কথা বলার চেষ্টা করেন স্থানীয়রা এসময় লোকজনের উপস্থিতি বাড়তে দেখে তারা দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। এসময় গ্রামবাসী তাদের ধাওয়া করে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে রাত পৌনে ১২টার দিকে এলাকাবাসীর কাছ থেকে আটককৃতদের পুলিশ থানায় নিয়ে আসে।