নাচোলে পূর্ব শত্রুতার জেরে সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত ২

আপডেট: মে ১৭, ২০২১, ৯:৫৬ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল উপজেলার পাহাড়পুর এলাকায় আম বাগান থেকে অবৈধভাবে জোর করে আম পাড়তে বাঁধা দেয়ায় ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের হামলায় ২ জন গুরুতর আহত হয়েছে। তারা বর্তমানে নাচোল মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। রোববার (১৬ মে) উপজেলার পাহাড়পুর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন, উপজেলার ফতেপুর ইউপির কুসমাডাঙ্গা গ্রামের জালাল উদ্দিনের ছেলে ইনায়েতুল্লাহ (২২) ও একই এলাকার হযরত আলীর ছেলে মঈন উদ্দিন (২০)।
অভিযোগ ও স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ফতেপুর ইউপির পাহাড়পুর মৌজার ৩১৭ নং দাগের ৯৪ শতক জমি (আমবাগান) দীর্ঘদিন ধরে ভোগদখল করে আসছে জালাল উদ্দিন, হযরত আলী, ফাইজুদ্দিনসহ জমির অংশীদাররা। গত রোববার (১৬ মে) সকাল ১০ টার দিকে পূর্ব বিরোধের জের ধরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর থানার নামোশংকরবটি এলাকার তাজেবুর রহমানের ছেলে মিজানুর রহমান (৩২) ভাড়া করা ইব্রাহিম, শিশিরসহ ১৫/১৬ জন সন্ত্রাসী নিয়ে বাগান থেকে জোর করে আম পাড়তে শুরু করে। পরে স্থানীয় লোকজনের মুখে বিষয়টি জানতে পেরে জমির মালিকরা আম পাড়তে বাঁধা দিলে তারা লাঠি, লোহার রড, হাসুয়াসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে জামির মালিকদের উপর হামলা চালায়। এসময় সন্ত্রাসীরা জমির মালিকদের বেধড়ক মারধর করে গুরুতর আহত করে। প্রচুর রক্তক্ষরণ হলে তাদেরকে নাচোল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।
এ বিষয়ে ভুক্তভোগী জালাল উদ্দীন বলেন, আমাদের ভোগদখলকৃত জমির আম বাগান থেকে জোর করে প্রতিপক্ষরা আম পেড়ে নিয়ে যাচ্ছিল। স্থানীয়দের মাধ্যমে জানতে পেরে বাঁধা দিতে গেলে তারা লাঠি, রড, হাসুয়া দিয়ে আমার উপর হামলা চালায়। এতে আমাদের অনেকেই গুরুতর আহত হয়। দুজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এ বিষয়ে নাচোল উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক কামরুল হাসান জানান, গুরুতর আহত অবস্থায় রোগিরা হাসপাতালে ভর্তি হলে জরুরিভাবে তাদের চিকিৎসা দেয়া হয়। একজনের বাম হাতে ৫টি সেলাই ও একজনের মাথায় ৪টি সেলাই দেয়া হয়। বর্তমানে তারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
এ বিষয়ে নাচোল থানার ওসি সেলিম রেজা জানান, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।