নাচোলে মৎস্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে এক গৃহবধূ শ্লীলতাহানীর অভিযোগ

আপডেট: জানুয়ারি ১, ২০১৭, ১২:১৩ পূর্বাহ্ণ

নাচোল প্রতিনিধি  


চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সুনীল মন্ডলের বিরুদ্ধে পৌর এলাকার দক্ষিণ সাঁকোপাড়া মহল্লার এক গৃহবধূর শ্লীলতাহানীর অভিযোগ পাওয়া গেছে। নাচোল থানার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত ২৬ ডিসেম্বর ওই গৃহবধূ তার বান্ধবীসহ  প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সত্যায়ণ করার জন্য অফিস চলাকালীন সময়ে উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সুনীল মন্ডলের কাছে  গেলে ওই কর্মকর্তা কাজের ব্যস্ততা দেখিয়ে তাদেরকে দীর্ঘ সময় অফিসে বসিয়ে রাখেন। এতে করে বিরক্ত হয়ে ওই গৃহবধূর বান্ধবী বাসায় চলে যান। পরে ওই গৃহবরূকে চা বিস্কুট দিয়ে আপ্যায়ণ করান এবং খোশগল্পের মধ্য দিয়ে মৎস্য কর্মকর্তা সুনীল মন্ডল সম্পর্ক গড়ে তোলার চেষ্টা করেন। একপর্যায়ে গৃহবধূ অফিস থেকে বের হওয়ার সময় মৎস্য কর্মকর্তা সুনীল মন্ডল কৌশলে তার মোবাইল নম্বর চেয়ে নেন। এরপর থেকে মোবাইলে ওই নারীর সাথে একাধিকবার কথোপকথনের মধ্য দিয়ে সম্পর্ক গড়ে তোলেন এবং তার বাড়িতে দাওয়াত চেয়ে নেন ওই কর্মকর্তা। অভিযোগে প্রকাশ, গত ২৮ ডিসেম্বর ওই গৃহবধূর স্বামীর অনুপস্থিতিতে তার বাড়িতে দওয়াত খেয়ে ফেরার সময় গৃহবধূর ইচ্ছার বিরুদ্ধে হাত ধরে হ্যান্ডশেক করার উসিলায় শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করেন মৎস্য কর্মকর্তা সুনীল মন্ডল। এঘটনায় ওই গৃহবধূু বাদী হয়ে নাচোল থানায় একটি অভিযোগ করেছেন। এব্যাপারে মৎস্য কর্মকর্তা সুনীল মন্ডলের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ওই নারীর আমন্ত্রণে তার বাড়িতে দাওয়াত খেয়ে বিদায় নেয়ার সময় তার হাত ধরে হ্যান্ডশেক করেছি মাত্র। কিন্তু শ্লীলতাহানীর অভিযোগ এনে আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। এদিকে নাচোল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ফাছির উদ্দিন বলেন, নাচোল পৌর এলাকার দক্ষিণ সাঁকোপাড়ার জনৈক গৃহবধূ এবং মৎস্য কর্মকর্তা সুনীল মন্ডলের পক্ষ থেকে পরস্পরের বিরুদ্ধে দুটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ