নাচ ও মডেলিং করার ‘অপরাধে’ পাকিস্তানে তরুণী বোনকে গুলি করে মারলেন ভাই!

আপডেট: মে ৭, ২০২২, ১:১৫ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


নাচ এবং মডেলিং তাঁর ভালবাসার বিষয়। কিন্তু সেই ভালবাসার ‘অপরাধে’ ভাইয়ের হাতে খুন হতে হল পাকিস্তানি এক তরুণীকে। পেশা হিসেবে নাচ এবং মডেলিংকে বেছে নেওয়ার কারণে ২১ বছরের বোনকে গুলি করে মারলেন ভাই।

পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশে এই ঘটনাটি ঘটেছে। মৃত যুবতীর নাম সিদ্রা তিনি পাকিস্তানের রাজধানী লাহৌর থেকে ১৩০ কিলোমিটার দূরে রেনালা খুর্দ ওকারার বাসিন্দা ছিলেন।

পুলিশ জানিয়েছে, পরিবারের ইচ্ছের বিরুদ্ধে গিয়ে স্থানীয় একটি পোশাক সংস্থার জন্য মডেলিং করছিলেন সিদ্রা। পাশাপাশি ফয়সালাবাদ শহরে একটি নাচের অনুষ্ঠানেও অংশগ্রহণ করেন। সেটাও মেনে নিতে পারেনি তাঁর পরিবার।

সিদ্রার বাবা-মা তাঁকে ‘পারিবারিক ঐতিহ্য’ বজায় রাখার জন্য দুই পেশায় ছেড়ে দিতে বললেও তাতে রাজি হননি ওই তরুণী।
পুলিশ আরও জানিয়েছে, পরিবারের সঙ্গে ইদ উদ্যাপন করার জন্য গত সপ্তাহে ফয়সালাবাদ থেকে বাড়ি ফিরেছিলেন তিনি।

বৃহস্পতিবার তাঁর বাবা-মা এবং ভাই তাঁকে আবারও পেশাগত কারণে কথা শোনাতে শুরু করেন। এমনকি, সিদ্রাকে তাঁরা মারধর করেন বলেও পুলিশ জানিয়েছে। কিন্তু তাতেও নাছোড়বান্দা সিদ্রা সাফ জানিয়ে দেন যে, তিনি তাঁর পেশা ছাড়বেন না।

এর পর শুক্রবার এক আত্মীয় সিদ্রার নাচের ভিডিয়ো তাঁর ভাইকে পাঠালে তা নিয়ে আবারও কথা কাটাকাটি শুরু হয় সিদ্রা এবং তাঁর ভাইয়ের মধ্যে। এর পর বিবাদ চরমে পৌঁছলে হঠাৎই সিদ্রার উপর গুলি চালান ভাই। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় সিদ্রার।

অপরাধ স্বীকার করে নেওয়ায় ভাইকে গ্রেফতার করে তাঁর বিরুদ্ধে খুনের মামলা রুজু করা হয়েছে বলেও পুলিশ জানিয়েছে।
তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা