নাচ করার অভিযোগে পাকিস্তানে পাঁচ নারী খুন

আপডেট: ডিসেম্বর ১৯, ২০১৬, ১২:০৩ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ছয় বছর আগে মোবাইলের একটা ভিডিও ক্লিপিং এ দেখা যাছে গানের তালে অনেক নারী হাসছেন ও হাততালি দিচ্ছেন। পাশাপাশি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে একই ঘরে একটি যুবক নাচ করছে। ভিডিওতে নারীদের মধ্য ছিল বাজিহা, সারিন জান, বেগম জান, আমীনা ও সাহীন। কিন্তু কী হল তাঁদের। কোন খোঁজ নেই তাঁদের এখন। ঘটনাটি ঘটেছে পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিমে দুর্গম পাহারি কোহিস্তান এলাকায়। অনেকে মনে করছেন স্থানীয় গোড়া ধর্মগুরু সম্মানহানী ও ধর্মের অজুহাত দিয়ে পাঁচ নারীর মৃত্যু নিধান দিয়ে ছিল। কিন্তু সেই আদেশ এড়িয়ে চলার চেষ্টা করে নারীদের পরিবার। শেষ রক্ষা করতে পারেনি পরিবারের মানুষজন। এই হত্যা মামলা পাকিস্তানের সর্বোচ্চ আদালত ২০১২ সালে খারিজ করে দেয়। অবশেষে পাকিস্তানের হাইকোর্ট গত সপ্তাহে এই খুনের মামলা পুনরায় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। পুলিশ তদন্ত করে জানতে পারে এলাকার ধর্মীয় নেতা মিলে কোহিস্তানের কোন পাহাড়ি জায়গায় গরম জল ও জ্বলন্ত কয়লায় ফেলে পাঁচ নারীকে হত্যা করেছে। পরবর্তী সময় তদন্তের জন্য কয়েকবার পুলিশ গিয়েও স্থানীয় নেতা, আত্মীয় স্বজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেও কোন সুরাহা করতে পারেনি। উল্টো দেখা গেছে গ্রামের সবাই বলছে এই ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি। আফজল খোইস্তানির করা আপিলে ভিত্তিতে হাইকোর্ট ঠান্ডা ঘরে ঢুকে যাওয়া মামলাটি পুনরায় তদন্তের নির্দেশ দেয়। খোইস্তানি জানান, ‘ওরা আমার পরিবারকে ধ্বংস করেছে। মেয়েরাও মারা গেছে। প্রতিবাদ করতে গিয়ে ভাইকেও খুন করেছে। এই হত্যার সঠিক বিচার ও আমাদের সুরক্ষার জন্য এই লড়াই চলবে।’- আজকাল

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ