নাটার বই মেলায় মঞ্চ মাতালেন ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠির শিল্পীরা

আপডেট: ডিসেম্বর ৭, ২০২২, ১১:১৭ অপরাহ্ণ

নাটোর প্রতিনিধি:


নাটোর জেলা বই মেলায় নেচে গেয়ে মঞ্চ মাতালেন, সাঁওতাল সম্প্রদায়ের শিল্পীরা। গত মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা ৬টায় নাটোর শহরের কানাইখালী মাঠে জেলা প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় ‘বাংলার বর্ণিল সংস্কৃতি, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সম্প্রদায়ের সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্য’ স্লোগানকে সামনে রেখে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী শিল্পীদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জেলা শিল্পকলা একাডেমী। শিল্পকলা একাডেমী অফিসার আব্দুল রাকিবিল বারীর

সার্বিক তত্ত্বাবধানে এবং জাতীয় আদিবাসী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কালিদাস রায়ের অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় সাংস্কৃতিক এ অনুষ্ঠানে অংশ নেয় নাটোর সদর উপজেলার ‘নশরতপুর আদিবাসী জাগরনী সাংস্কৃতিক দল’ এর ২৩ জন শিল্পী। অনুষ্ঠানের শুরুতেই সাঁওতাল শিল্পীরা দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের উপর গুরুত্বারোপ ও শ্রদ্ধা রেখে দলীয় সংগীত পরিবেশন করেন।

এসময় সাঁওতালী ভাষায় রচিত গানে মহান মুক্তিযুদ্ধে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্ব ও অবদান তুলে ধরা হয়। পরে অনুষ্ঠানে ঘণ্টাব্যাপী সেগমেন্টে সাঁওতাল শিল্পীরা তাদের মনোমুগ্ধকর পরিবেশনা উপহার দেন।

অনুষ্ঠানের পুরোটা সময় ধরে দর্শনার্থীরা বৈচিত্র্যময় পরিবেশনা উপভোগ করেন। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সাঁওতাল শিল্পীদের মধ্যে অংশগ্রহণ করেন, শর্মিলা হেমব্রম, শ্রাবনী হেমব্রম, রুমা টডড, ক্রিস্টিনা সরেন, অর্পিতা কিসকু, বর্ষ সরেন, মহেশ হেমব্রম প্রমূখ।
জেলা শিল্পকলা একাডেমী অফিসার আব্দুল রাকিবিল বারী জানান, প্রতিটি সম্প্রদায়ের মানুষ একটি স্বকীয় বৈশিষ্ট্যের অধিকারী।

প্রতিটি সম্প্রদায়ের রয়েছে আলাদা আলাদা সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্য। বাংলাদেশ এসব ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর বৈচিত্যময় ও বর্ণিল সংস্কৃতি সংরক্ষণের চেষ্টা করে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত। তারই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির নির্দেশনায় ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সম্প্রদায় সাঁওতালদের পরিবেশনায় বাংলার বর্ণিল সংস্কৃতি শীর্ষক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এছাড়া প্রতিটি সাংস্কৃতিক পরিবেশনায় তাদেরকেও পর্যায়ক্রমে অন্তর্ভূক্ত করা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ