নাটোরের চলনবিলকে ব-দ্বীপ পরিকল্পনায় অন্তর্ভূক্তির বিষয়ে সংলাপ অনুষ্ঠিত

আপডেট: ডিসেম্বর ৮, ২০২১, ৯:৫৩ অপরাহ্ণ

নাটোর প্রতিনিধি:


ডেল্টা পরিকল্পনায় চলনবিলের জীব বৈচিত্র্য সংরক্ষণ এবং পরিবেশবান্ধব উন্নয়ন কার্যক্রম গ্রহণের লক্ষ্যে নাটোরে সংশ্লিষ্ট অংশীজন ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সাথে এক সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (৮ ডিসেম্বর) নাটোর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. নজরুল ইসলাম।
নাটোরের জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদের সভাপতিত্বে সংলাপে ব-দ্বীপ পরিকল্পনার উপ প্রকল্প পরিচালক মির্জা মো. মহিউদ্দিন বলেন, ব-দ্বীপ পরিকল্পনা ২১০০ একটি দীর্ঘমেয়াদী, সমন্বিত ও সামষ্টিক পরিকল্পনা-যা পানি-সম্পদ ব্যবস্থাপনা, জলবায়ু পরিবর্তন এবং পরিবেশগত চ্যালেঞ্জগুলো বিবেচনা করে বাংলাদেশের দীর্ঘ মেয়াদী উন্নয়নকে সহায়তার জন্য প্রণয়ন করা হচ্ছে। এই পরিকল্পনায় একটি অংশ দেশের জলাভূমি। ২০০ বিলিয়ন ডলারের এই পরিকল্পনার ৮০টি প্রকল্পের মধ্যে চলনবিলকে অন্তর্ভূক্তকরণে সমীক্ষা কার্যক্রম চলছে। নেদারল্যান্ড এ ব্যাপারে আর্থিক ও কারিগরি সহায়তা প্রদান করছে।

সংলাপে তিনটি জেলার ১০টি উপজেলা জুড়ে বিস্তৃত চলনবিলের ২০ লাখ মানুষের জীবন ও জীবিকা বিষয়ে পাওয়ার পয়েন্টে তথ্যচিত্র উপস্থাপন করেন জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার (আইসিটি) শরীফ শাওন। ব-দ্বীপ পরিকল্পনায় চলনবিল অংশের পরিকল্পনা প্রস্তাবনা নিয়ে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ‘সাথী’র নির্বাহী পরিচালক শিবলী সাদিক, পরিবেশ সংগঠনের সংগঠক সাইফুল ইসলাম এবং নেদারল্যান্ড হাই কমিশনের প্রধান মার্টিজন ভেনডে গ্রোপ সহ ৬ সদস্যের প্রতিনিধিবৃন্দ। এসময় স্থানীয় অংশীজন, সরকারি কর্মকর্তা, সাংবাদিক এবং সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।