নাটোরের বড়াইগ্রামে ইট ভাটার আড়ালে রমরমা মাদক ব্যবসা আটক ১

আপডেট: জুন ২২, ২০১৭, ১:১০ পূর্বাহ্ণ

নাটোর অফিস


বড়াইগ্রামের জোনাইল ইউনিয়নের চরগোবিন্দপুরে ইট ভাটার আড়ালে মাদক ব্যবসার নেটওয়ার্ক গড়ে তুলেছে কুষ্টিয়া থেকে আগত কয়েক জন ব্যাক্তি। ইতোমধ্যে ইট ভাটায় অভিযান চালিয়ে মাদকের চালানসহ একজনকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় বড়াইগ্রাম থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
এমএনপি ব্রিকস্’ের মালিক নূরুল ইসলাম জানান, এক বছর আগে কুষ্টিয়া দৌলতপুর উপজেলার সিরাজনগরের বাসিন্দা শাহীন রেজা (৩৮) চরগোবিন্দপুর গ্রামে এমএনপি ব্রিকস্’ের মালিক নুরুল ইসলামের সঙ্গে যৌথভাবে ইট ব্যবসার চুক্তি করেন। চুক্তি অনুযায়ী কাজ শুরুর কিছু দিনের মধ্যেই শাহীন রেজা পরিকল্পিত ভাবে আগের নৈশ প্রহরীসহ অন্য কর্মচারীদের বাদ দিয়ে তার নিজ এলাকা থেকে ভাটায় কর্মচারী নিয়োগ দেয়। এক পর্যায়ে মূল মালিক নূরুল ইসলামকেও ভাটা ছাড়তে বাধ্য করে। আর এ সুযোগে শাহীন রেজা ভাটায় ইট ব্যবসার আড়ালে মাদকের স্বর্গরাজ্য গড়ে তোলে। প্রতিদিনই সকাল-সন্ধ্যা এখানে জমে উঠে মাদকের আসর। গত সোমবার পুলিশ ইট ভাটায় শাহীন রেজার শোবার ঘরে তল্লাশি চালিয়ে দুইশ পিস ইয়াবা ও ১০ গ্রাম হেরোইন জব্দ করে। এ সময় টের পেয়ে শাহীন রেজা পালিয়ে গেলেও ভাটার কর্মচারী কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলার টেকেলা গ্রামের ইন্তাজ আলীর ছেলে ধনিরুল ইসলামকে (৩০) আটক করে পুলিশ। এভাবে ইট ভাটার ব্যবসার আড়ালে মাদক ব্যবসার খবর ফাঁস হওয়ার পর এলাকাবাসীর মাঝে বিস্ময়ের সৃষ্টি হয়েছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় কয়েক জন ব্যক্তি জানান, ইটভাটাটি একদম ফাঁকা জায়গায় নিরিবিলি পরিবেশে হওয়ায় লোকজনের আনাগোনা খুব কম। এ সুযোগে প্রতিদিন বিকেল হলে মোটরসাইকেল ও সিএনজি যোগে অপরিচিত ব্যাক্তিরা এ ভাটায় আসে। এভাবে আসা-যাওয়ার সময় ব্যাগে করে কিছু মালামাল আনা নেয়া করে তারা।
বড়াইগ্রাম থানার এসআই মামুন ইট ব্যবসার আড়ালে মাদক ব্যবসার অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ ঘটনায় ধনিরুল ও শাহীন রেজাকে আসামি করে থানায় মাদকদ্রব্য আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। শাহীন রেজাকে আটকের চেষ্টা চলছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ