নাটোরের লালপুরে নৌকার ভরাডুবি, ১০ ইউপি’র ৭ টিতেই পরাজয়

আপডেট: নভেম্বর ২৯, ২০২১, ৩:২৬ অপরাহ্ণ


নাহিদ হোসেন, লালপুর(নাটোর)প্রতিনিধি:


তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে নাটোরের লালপুরে নৌকার ভরাডুবি হয়েছে। উপজেলার ১০ টি ইউনিয়নের মাত্র ৩ টিতে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীরা জয়ী হয়েছে। বাকী ৭টির মধ্যে ২ টি তে বিএনপি সমর্থিত স্বতন্ত্র ও ৫ টিতে নৌকার বিদ্রোহীরা জয়লাভ করেছেন।
বেসরকারিভাবে বিজয়ী প্রার্থীরা হলেন, ১নং লালপুর ইউপিতে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আবু বক্কর সিদ্দিক পলাশ, ২নং ঈশ্বরদী ইউপিতে বিএনপি সমর্থিত ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী আব্দুল আজিজ রঞ্জু, ৩ নং চংধুপইল ইউপিতে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী রেজাউল করিম, ৪ নং আড়বাব ইউপিতে আওয়ামীলীগ সমর্থিত

ঘোড়া প্রতীকের বিদ্রোহী প্রার্থী মোখলেছুর রহমান, ৫ নং বিলমাড়িয়া ইউপিতে বিএনপি সমর্থিত ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী সিদ্দিক আলী মিষ্টু, ৬ নং দুয়ারিয়া ইউপিতে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী নুরুল ইসলাম লাভলু, ৭নং ওয়ালিয়া ইউপি’তে আওয়ামীলীগ সমর্থিত ঘোড়া প্রতীকের বিদ্রোহী প্রার্থী নূরে আলম সিদ্দীক, ৮ নং দুড়দুড়িয়া ইউপিতে আওয়ামীলীগ সমর্থিত আনারস প্রতীকের বিদ্রোহী প্রার্থী তোফাজ্জল হোসেন তোফা, ৯ নং এবি ইউপিতে আওয়ামীলীগ সমর্থিত আনারস প্রতীকের বিদ্রোহী প্রার্থী গোলাম মোস্তফা আসলাম ও ১০ নং কদিমচিলান ইউপিতে আওয়ামীলীগ সমর্থিত ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী আনছারুল ইসলাম।

লালপুর উপজেলায় নৌকার এমন ভরাডুবির কারণ জানতে চাইলে উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি এস্কেন্দার মির্জা বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি-সম্পাদক যোগসাজসে থানা কমিটির এক তৃতাংশ নেতাকর্মীদের মতামতের বাইরে ত্যাগী ও বঞ্চিত নেতাদের নাম কেন্দ্রে না পাঠিয়ে দুর্নীতিবাজদের নাম পাঠিয়েছে। যারা বেশিরভাগই ছিলো বর্তমান চেয়ারম্যান। পাঁচ বছর ক্ষমতার অপব্যবহার করে দুর্নীতি করেছে। এ জন্য ভোটের ফলাফল বিপর্জয় হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ