নাটোরে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক: আইসিটি খাতে তিন হাজার ৯৭৪ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে সরকার

আপডেট: জুন ৪, ২০১৭, ১১:৪৬ অপরাহ্ণ

নাটোর অফিস


নাটোর পৌরসভায় শেখ রাসেল ডিজিটাল সেন্টার, পৌরসভার ডিজিটাল ল্যাব, ব্যাংক এশিয়ার শাখা এবং ডিজিটাল পদ্ধতি বিদ্যুতবিল উদ্ধোধন করেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক -সোনার দেশ

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে সম্প্রতি বাজেটে ৯৪টি আইটি পণ্য ভ্যাটমুক্ত করা হয়েছে। এছাড়া গত বছরের চেয়ে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে আইসটি খাতে ২১৮ শতাংশ বাজেট বৃদ্ধি করে মোট তিন হাজার ৯৭৪ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।
গতকাল রোববার দুপুরে নাটোর পৌরসভায় শেখ রাসেল ডিজিটাল সেন্টার, পৌরসভার ডিজিটাল ল্যাব, ব্যাংক এশিয়ার শাখা এবং ডিজিটাল পদ্ধতি বিদ্যুতবিল উদ্ধোধন শেষে তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের জন্য বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে আইসিটি খাতে ১১ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। এইজন্য আইসিটি খাতে ব্যাপক উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে।
আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, সারা বাংলাদেশে চারটি বিষয়কে সুসংগঠিত করা হচ্ছে। প্রথমে ই-গর্ভানেন্স এর মাধ্যমে সরকারের প্রতিটি অফিসের সেবা জনগণের দোর গোড়ায় পৌঁছাতে চাই। এছাড়া দেশের সাড়ে ৪ কৌটি ২৭লাখ শিক্ষার্থীকে আইটি শিক্ষায় শিক্ষিত করে বিশ্বের সাথে যাতে তাল মেলাতে সে জন্য মানবসম্পদ উন্নয়নে কাজ করছে সরকার। বিগত নয় বছর আগে যেখানে বাংলাদেশে আইটি এক্সপট ছিল ২৬মিলিয়ন সেখানে ধিরে ধীরে বৃদ্ধি পাচ্ছে।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, যে নৌকা মার্কায় ভোট দেয় নি তার জন্যও শেখ হাসিনার সরকার কাজ করছে। যে ভোট দিয়েছে তার জন্যও কাজ করছে। আগে বাংলাদেশ দুর্নীতিতে তিন বার বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। কিন্তু তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে আগের চেয়ে দুর্নীতি অনেক কমে এসেছে।
এসময় নাটোর পৌরসভার মেয়র উমা চৌধুরি জলির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন নাটোর-১ আসনের সাংসদ অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ, নাটোর-২ আসনের সাংসদ শফিকুল ইসলাম শিমুল, নাটোরের জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুন, নাটোর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাজেদুর রহমান খান, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শরিফকুল ইসলাম রমজানসহ অন্যরা। পরে পুরতান জেলখানায় স্থাপিত শেখ কামাল আইটি পার্ক এর নির্মিত কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন করেন প্রতিমন্ত্রী।