নাটোরে এক মুদি ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার, স্ত্রী আটক

আপডেট: অক্টোবর ১৬, ২০২১, ৯:০৬ অপরাহ্ণ


নাটোর প্রতিনিধি:


নাটোরের নলডাঙ্গায় থেকে আব্দুর রাজ্জাক নামে এক মুদি ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত আব্দুর রাজ্জাক নলডাঙ্গা উপজেলার হামেদ আলীর ছেলে। শনিবার সকালে উপজেলার মোমিনপুর গ্রামে নিজ ঘর থেকে ওই ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে নিহতের স্ত্রী সালমা বেগমকে। পুলিশের ধারণা পরকীয়ার জেরে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করেছে।

পুলিশ ও গ্রামবাসি সূত্রে জানা যায়, নলডাঙ্গা উপজেলার মোমিনপুর গ্রামের মুদি ব্যবসায়ী আব্দুর রাজ্জাক, প্রায় কুড়ি বছর আগে পার্শ^বর্তী উপজেলা পুঠিয়াতে বিয়ে করে। বিয়ের পর তাদের ঘরে দুই ছেলে-মেয়ের জন্ম হয়। এক পর্যায়ে সে পরকীয়ার জড়িয়ে পড়ে। এই নিয়ে বিভিন্ন সময় স্বামী-স্ত্রীর বিরোধ চলে আসছিল। এমন কি স্বামীর সাথে এক ঘরে থাকতো না সালমা বেগম। স্বামীর সাথে সংসার করতে চাইতো না সালমা। এ কারণে নানা সময় স্বামী আব্দুর রাজ্জাককে মারপিট করতো। গত রাত ১১ টার দিকে দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফিরে যায়। রাত ১২টার দিকে স্ত্রীর চিৎকার শুনে ঘরে ঢুকে আব্দুর রাজ্জাকের মৃত দেহ দেখতে পায়। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে নাটোর মর্গে প্রেরণ করে।

নিহত আব্দুর রাজ্জাকের বাবা হামেদ আলীর অভিযোগ করে বলেন, পরকীয়ার কারণেই তার ছেলে আব্দুর রাজ্জাককে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাস রোধে হত্যা করেছে।

নলডাঙ্গা থানার ওসি শফিকুল ইসলাম জানান, প্রাথমিকভাবে তারা পরকীয়ার বিষয়টা অভিযোগ পেয়েছেন। সেই বিষয় সামনে রেখে পুলিশ তদন্ত করছে। ঘটনার সাথে এরকম কারো সম্পৃক্ততা পেলে আইনগত ভাবে ব্যবস্থা নেয়া হবে। অপর দিকে এএসপি সার্কেল মহসিন আলী জানান, বিষয়টি নিয়ে পুলিশ তদন্ত কার্যক্রম শুরু করেছে।