নাটোরে চেয়ারম্যান প্রার্থীর প্রধান সমন্বয়কারীকে হাতুড়িপেটা, হাসপাতালে ভর্তি

আপডেট: মে ২০, ২০২৪, ৯:৩৪ অপরাহ্ণ


নাটোর প্রতিনিধি:


নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী এএসএম জাহাঙ্গীর হোসেন মানিক (মোটরসাইকেল প্রতীকের) প্রধান সমন্বয়কারী শহিদুল ইসলামকে হাতুড়িপেটার অভিযোগ উঠেছে আনারস প্রতীকের সমর্থকদের বিরুদ্ধে।এ ঘটনায় আহত শহিদুল ইসলামকে দেখতে নাটোর সদর হাসপাতালে যান নাটোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মাহমুদা শারমীন নেলীসহ পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তারা। রোববার (১৯ মে) দিনগত রাত ৩ টার দিকে উপজেলার ফাগুয়ারদিয়ার ইউনিয়নের সাতশৈল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহত মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, সোমবার গভীর রাতে কালাম আনারস প্রতীকের ৭/৮ জন কর্মী আমার বাড়িতে এসে ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে। এসময় তারা আমার মাথায় ও বুকে পিস্তল ধরে বলে, ‘শালা তোক বিএনপি করা জীবনের মনে শিক্ষা দেবো’- এ বলে আমার মাথায় ও শরীরে হাতুড়ি ও রড দিয়ে আঘাত করলে আমি রক্তাক্ত জখম হয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলি। পরে পরিবার’র লোকজন আমাকে উদ্ধার করে নাটোর হাসপাতালে ভর্তি করেছেন।

মোটরসাইকেল প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী এএসএম জাহাঙ্গীর হোসেন মানিক বলেন, রোববার নির্বাচনী প্রচারণা কাজ শেষ করে রাতে বাড়ি ফিরেন আমার প্রধান সমন্বয়কারী শহিদুল ইসলাম। রাত ৩টার দিকে আনারস প্রতীকের প্রার্থী শরিফুল ইসলামের সন্ত্রাসী বাহিনী আমার প্রধান সমন্বয়কারীর বাড়ির দরজা ভেঙ্গে তার ঘরে ভিতরে প্রবেশ করে তার বুকে পিস্তল ঠেকিয়ে হাতুড়ি ও লোহার রড দিয়ে মাথায় এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে। এতে তার মাথায় রক্তাক্ত জখম হয়। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

তিনি আরও জানান, নির্বাচন গণতন্ত্রের অধিকার। এ নির্বাচনে একটি পক্ষ প্রতিপক্ষ ব্যক্তির ওপর হামলা করবে এটা ঘৃণিত কাজ। আমি প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ চাই। আমার প্রধান সমন্বয়কারীর ওপর যে হামলা করা হয়েছে। দোষীদের গ্রেফতার করে দ্রুত বিচার দাবি করছি। এ ঘটনায় ভোটারদের মাঝে একটা ভয়ভীতি কাজ করছে। প্রশাসন এ বিষয়ে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিবেন বলে আশা করছি।

তবে আনারস প্রতিকের চেয়ারম্যান প্রার্থী শরিফুল ইসলাম এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এ ঘটনার বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না। রাজনৈতিকভাবে তাকে হেয় প্রতিপন্ন করতেই এমন মিথ্যাচার করা হচ্ছে।

বাগাতিপাড়া মডেল থানার কর্মকর্তা (ওসি) নান্নু খান বলেন, আনারস প্রতীকের সমর্থকরা মোটরসাইকেল কর্মীকে মারপিট করেছেন। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছেন। তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।