নাটোরে দিনমজুর ও অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

আপডেট: মার্চ ২৬, ২০২০, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ণ

নাটোর প্রতিনিধি


করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে সারাদেশের ন্যায় নাটোরেও বন্ধ হতে শুরু করেছে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ হোটেল-রেস্তোরা। এতে কর্মহীন হয়ে পড়ছেন নিম্ন আয়ের মানুষ। অপরদিকে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্রীয়ভাবে সাধারণ ছুটি ঘোষণাসহ ১০ নির্দেশনা দিয়েছেন। করোনাভাইরাসের কারণে ২৬ মার্চ থেকে আগামী ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সরকারি ছুটি থাকবে।
সরকারের এ নির্দেশনা মেনে ঘরে থাকতে উদ্বুদ্ধ করাসহ ১০ দিনের প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী দিয়েছেন বেসরকারি সংস্থা সম্প্রীতি সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি। গতকাল বুধবার সকালে এক শতাধিক হতদরিদ্র খেটে খাওয়া মানুষের মাঝে এ খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়। এসময় সমিতির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান টুটুল এবং নাটোর জেলা বাস মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সাগর ইসলামের নেতৃত্বে ৫ টি গ্রুপে শহরের স্টেশন বাজার, আলাইপুর, কান্দিভিটুয়া, কানাইখালী এলাকার শতাধিক দিনমজুর পরিবারগুলোর বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাবার পৌঁছে দেয়া হয় । ১০ ধরণের নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী পেয়ে অনেকটা স্বস্তি ফিরে এসেছে এসব মানুষের মাঝে। এখাদ্য সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে ৫ কেজি চাল, ৫ কেজি আলু, ২ কেজি পেঁয়াজ, ১ কেজি সয়াবিন তেল, ১ কেজি মসুরের ডাল, একটি কাপড় কাচা সাবান, একটি ডেটল সাবান, একটি সায়েন্টিফিক মাস্ক, একটি হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও সচেতনতামূলক লিফলেট।
সম্প্রীতির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান টুটুল বলেন, বিশ্বে করোনা ভাইরাস মহামারী আকার ধারণ করেছে। সরকার ইতোমধ্যে মানুষকে ঘরে থাকার নির্দেশ দিয়েছে। এতে করে দিন খেটে খাওয়া মানুষেরা বিপাকে পড়বেন। তাদের মাঝে খাদ্য সংকট দেখা দেবে। হতদরিদ্র মানুষের কথা চিন্তা করে আমার প্রতিষ্ঠান সম্প্রীতির উদ্যোগে ১০০ দরিদ্র পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছি। প্রতিটি প্যাকেট ৮শ টাকা মূল্যে খাদ্যসামগ্রীসহ অন্যান্য নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী রয়েছে। দেশের একটি সংকটময় মুর্হুতে আমি দেশের বড় বড় এনজিও, কো¤পানীর মালিক, ব্যবসায়ীদের অনুরোধ করবো তারা যেন মধ্যে হতরিদ্র মানুষের পাশে এসে দাঁড়ায়।
অসহায় মানুষরা এই ১০ দিনের খাদ্য মজুদ করতে পারেনি। তারা কাজের সন্ধানে বের হলে করোনা ভাইরাস ছড়াতে পারে।এই প্রেক্ষিতে সম্প্রীতি সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি উদ্যোগে ১০০ হতদরিদ্রদের পাশে আমরা দাঁড়িয়েছি।