নাটোরে দুটি বাসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা

আপডেট: ডিসেম্বর ৪, ২০২৩, ১১:৫৭ পূর্বাহ্ণ


নাটোরে প্রতিনিধি :


নাটোরে দাঁড়িয়ে থাকা দুটি বাসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি। রোববার (৩ ডিসেম্বর) রাত পৌনে ১১টায় নাটোর শহরের চকরামপুর এলাকায় এই অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, ক্ষতিগ্রস্ত বাসের মালিক শহরের গোনী হাজীর ছেলে মোসলেম উদ্দিন এবং নটোর বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, সোমবার রাত ১০:৩০ টার দিকে শহরের হরিশপুর এলাকার ভিআইপি হোটেলের পাশে গ্যারেজ করা ছিল সারিবদ্ধ বাস। এর মধ্যে সামি জনি (ঢাকা মেট্রো-ব-১৪-৫০৭০) এবং রাজকীয় পরিবহনের (ঢাকা মেট্রো-ব-১৫-৬৬৬৫) বাসে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। স্থানীয়রা আগুন দেখে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস খবর দেয়। খবর পেয়ে দ্রুত ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে এসে ৪০ মিনিট চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। তবে বাসের ভিতরের অংশে আগুনে পুড়ে যায়।

বাসের এক কর্মচারী বেলাল উদ্দিন জানান, রাত সাড়ে ১০টার পরে বাসগুলো গ্যারেজ করে তারা বাসায় চলে যায়। আগুনের সংবাদ পেয়ে ছুটে এসে দেখেন দুটি বাসে আগুন জ¦লছে। পাশে দাঁড়িয়ে থাকা অপর একটি বাস (ঢাকা মেট্রো-ব-১১-৭০৩২) মাত্র আগুন লাগছে তখন স্থানীয়দের সহায়তায় দ্রুত বাসটিকে আগুন থেকে নক্ষা করেন।

ফায়ার সার্ভিসের নাটোর স্টেশন অফিসার ফিরোজ কুতুবী বলেন, রাত পৌনে ১১টার দিকে দাঁড়িয়ে থাকা সামি জনি ও রাজকীয় নামে দুটি বাসে আগুন দেয়ার খবর পায় ফায়ার সার্ভিস। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে ৪৫ মিনিটের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এতে হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

মো. শফিকুল ইসলাম শিমুল এমপি বলেন, এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনা হবে।
নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ স¤পাদক শরিফুল ইসলাম রমজান বলেন, এটি নাশকতা। দাঁড়িয়ে থাকা ২টি গাড়িতে আগুন দেয়া হয়েছে। নির্বাচন এগিয়ে আসায় অবরোধকারীরা এই নাশকতা করেছে।

নাটোর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাসিম আহমেদ বলেন, দাঁড়িয়ে থাকা সামি জনি ও রাজকীয় নামে দুটি বাসে আগুন দেয়া হয়েছে। নাশকতাকারীদের আটকের চেষ্টা চলছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ