নাটোরে পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় স্বামীর বিরুদ্ধে অন্তঃসত্তা গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

আপডেট: মার্চ ২৯, ২০২৩, ১০:৫১ অপরাহ্ণ

নাটোর প্রতিনিধি:


নাটোরের বাগাতিপাড়ায় পরকীয়া প্রেমে বাধা দেওয়ায় রিপা খাতুন (২৭) নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তারই স্বামীর বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার (২৮ মার্চ) রাত ৭টার দিকে বাগাতিপাড়া উপজেলার পাকা ইউনিয়নের সলইপাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। নিহত রিপা রাজশাহী জেলার বাঘা উপজেলার উত্তর মল্লিকবাঘা গ্রামের আনছার ফকিরের মেয়ে ও বাগাতিপাড়ার সলইপাড়া এলাকার কবির হোসেনের স্ত্রী।

নিহত রিপার বড় ভাই মুশিকুল ইসলাম জানান, গত ১০/১১ বছর আগে আমার বোনের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে কবির। পরে তাদের পারিবারিকভাবে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়। তাদের সংসারে ১১ বছরের মাহী এবং রকী নামে ৫ বছরের দুই পুত্র সন্তান আছে। মৃত্যুকালেও অন্তঃসত্তা ছিল রিপা। কবিরের পরকীয়া প্রেমের কারণে গত ৭/৮ মাস পূর্বে থেকে রিপার সাথে কবিরের প্রায় মনোমালিন্য ও বাকবিতন্ডা হয়।

মুশিকুল ইসলাম দাবি করে জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রিপার প্রতিবেশি এক নারী মোবাইল ফোনে জানায়, কবির ও তার পরিবারের লোকজন রিপাকে মারপিট করেছে। তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। এমন খবর শুনে তিনি তার বোন রিপাকে দেখতে হাসপাতালে যান। সেখানে গিয়ে রিপার মরদেহ দেখতে পান তিনি।

বাগাতিপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার রিতা হাওলাদার জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা ৫০ মিনিটে রিপা নামে ওই গৃহবধূকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। কিন্তু এখানে আসার প্রায় ১৫ থেকে ২০ মিনিট আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

বাগাতিপাড়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সিরাজুল ইসলাম জানান, বিষয়টি অবহিত হওয়ার পরে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এই ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তদন্ত ও ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ